খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

মাইকেল ভন থেকে সুনীল গাভাস্কার, ধারাভাষ্যের সময় বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছেন যাঁরা!

মাইকেল ভন থেকে সুনীল গাভাস্কার, ধারাভাষ্যের সময় বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠেছেন যাঁরা!

ভারতীয় ক্রিকেট তথা বিশ্বক্রিকেটে এই খেলোয়াড়ের এক আলাদা জায়গা রয়েছে। লোকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার চোখে দেখেন এই কিংবদন্তী ক্রিকেটারকে। কিন্তু IPL চলাকালীন এক সন্ধ্যায় সুনীল গাভাস্কারের একটি মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়।

  • Share this:

#মুম্বই: বিগ ব্যাশ লিগে ধারাভাষ্য দেওয়ার জন্য মেলবোর্নের কমেন্ট্রি বক্সে বসেছিলেন কিংবদন্তি স্পিনার শেন ওয়ার্ন (Shane Warne) এবং অলরাউন্ডার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস (Andrew Symonds)। এমন সময়, মার্নাস লাবুশানেকে (Marnus Labuschagne) নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে ফেলেন। বলেন, মার্নাস লাবুশানের ADD আছে। ‘অ্যাটেনশন ডেফিসিট ডিজঅর্ডার’-কেই ছোট করে এডিডি বলেন সাইমন্ডস। অর্থাৎ এমন কোনও ব্যক্তি, যিনি সব সময়ে অন্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চান। আর এই রোগেই আক্রান্ত লাবুশানে। সম্প্রতি এই মন্তব্য নিয়ে সরগরম হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়া। তবে এটা প্রথমবার নয় । ক্রিকেট ইতিহাসে বারবার ঘটেছে এই একই ঘটনা। মাইকেল ভন থেকে সুনীল গাভাস্কার, বড় বড় তারকারা বিদ্ধ হয়েছেন কড়া সমালোচনায়। দেখে নেওয়া যাক এমন কিছু বিতর্কিত মুহূর্ত।

মাইকেল ভন (Michael Vaughan)

কখনও ভারতীয় দলের প্রতি তেমন সদয় হতে দেখা যায়নি এই ক্রিকেটারকে। আর তার প্রমাণও মিলেছে বারবার। ২০১১ সাল। ইংল্যান্ডে ভারতীয় দলের সফর। লক্ষ্মণের (VVS Laxman) ব্যাটের প্রান্ত ছুঁয়ে বল বেরিয়ে যায়। শুরু হয় DRS জল্পনা। এমন সময় ভন এক বিদঘুটে মন্তব্য করে বসেন। বলেন, ব্যাটে ভেসলিন লাগিয়েছেন লক্ষ্মণ। এর জেরে বল ব্যাটের এজ ছুঁয়েছে কি না তা বোঝা যাচ্ছে না। স্নিকোমিটারেও ধরা পড়ছে না।

নাসির হুসেন (Nasser Hussein)

২০১১ সাল। ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে T20I ম্যাচ চলছে। কিন্তু ইতিমধ্যেই ফিল্ডিংয়ে বড় গা ছাড়া ভাব ভারতের। কয়েকটি ক্যাচও মিস হয়ে গিয়েছে। এমন সময় উইকেট কিপার পার্থিভ প্যাটেলও (Parthiv Patel) একটি ক্যাচ মিস করে ফেলেন। মেজাজ হারান নাসির হুসেন। নাসিরের মুখ ফস্কে বেরিয়ে যায়, ভারতের তিন-চারজন খুব ভালো ক্রিকেটার রয়েছে। আর এখনও মাঠে দু'-একটা গাধাও রয়েছে। এর পর নাসিরের এই মন্তব্য নিয়ে কড়া সমালোচনা হয়।

কেরি ও'কিফ (Kerry O'Keefe)

ম্যাচের ধারাভাষ্য করতে গিয়েই বিপাকে পড়েন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার কেরি ও'কিফ। সেবার টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে ময়ঙ্ক আগরওয়ালের (Mayank Agarwal)। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের আক্রমণ সামলে সেবার হাফ সেঞ্চুরি করেন। কমেন্ট্রি বক্সে তখন কেরি ও'কিফ, মার্ক ওয় ( Mark Waugh) ও শেন ওয়ার্ন। সেই সময় ও' কিফ বলে ওঠেন, রঞ্জি ট্রফিতে যে সমস্ত বোলারদের বিরুদ্ধে খেলে ময়াঙ্ক ট্রিপল সেঞ্চুরি করেছেন, তাঁরা আসলে ছিলেন ক্যান্টিনের কর্মী। বিদ্রুপের ভঙ্গিতে তাঁর মন্তব্য ছিল- আপাতদৃষ্টিতে দেখতে গেলে ময়াঙ্ক ট্রিপল সেঞ্চুরিটা পেয়েছিল রেলওয়েজ ক্যান্টিনের কর্মীদের বোলিংয়ের বিরুদ্ধে খেলে। ও’কিফ আরও বলেন, রান্নাঘরের কোনও কর্মী হয় তো সেই ম্যাচে বোলিং শুরু করেছিল! ও’কিফের মতো মার্ক ওয়ের মুখেও মায়াঙ্কের পারফরম্যান্স নিয়ে বিদ্রুপ শোনা যায়। তিনি মন্তব্য করেন- ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে ময়াঙ্কের রানের গড় ৫০। ওটা অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ৪০-এর সমান। এর পর ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটকে ছোট করা ও বর্ণবিদ্বেষের অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। পরে অবশ্য ক্ষমা চান কেরি।

ডিন জোনস (Dean Jones)

ক্রিকেট দুনিয়ায় এক বড় নাম। ক্রিকেট পরবর্তী জীবনে কোচিং, কমেন্ট্রির কাজ করেছেন। তবে ধারাভাষ্যের কাজ করতে গিয়েই বিপাকে পড়ে যান অস্ট্রেলিয়ান এই ক্রিকেটার। একবার কমেন্ট্রি করতে গিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটার হাসিম আমলাকে (Hashim Amla) টেররিস্ট বলে ফেলেন তিনি। ২০০৬ সালে শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ চলাকালীন ঘটনাটি ঘটে। স্লিপে একটি দুরন্ত ক্যাচ নেওয়ার পর আমলাকে মজা করে জোনস বলেন- The terrorist has got another one। এর কিছু দিন পরেই অবশ্য ধারাভাষ্যের কাজ থেকে অব্যাহতি নেন তিনি।

সুনীল গাভাস্কার (Sunil Gavaskar)

ভারতীয় ক্রিকেট তথা বিশ্বক্রিকেটে এই খেলোয়াড়ের এক আলাদা জায়গা রয়েছে। লোকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার চোখে দেখেন এই কিংবদন্তী ক্রিকেটারকে। কিন্তু IPL চলাকালীন এক সন্ধ্যায় সুনীল গাভাস্কারের একটি মন্তব্য নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। এ নিয়ে অবশ্য ফ্যানেরা ও মিডিয়াদের একাংশ ভিন্ন মত পোষণ করে। সেদিন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের খেলা চলছিল। রাহুলের (KL Rahul) একটা সোজা ক্যাচ মিস করেন কোহলি। এর মাশুল দিতে হয় রাহুলের সেঞ্চুরি দিয়ে। এরপরই কমেন্ট্রি বক্স থেকে বিরাটের উদ্দেশে গাভাস্কার বলে ওঠেন হিন্দিতে- লকডাউন মে ইনহোনে বস অনুষ্কা কি বোলিং প্র্যাকটিস কি হ্যায়! পরে এই কমেন্ট নিয়ে তোলপাড় শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Published by: Pooja Basu
First published: January 11, 2021, 5:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर