• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • CHENNAI SUPER KINGS RAINING ON KINGS XI PUNJABS IPL PARADE HAS BROUGHT OUT THE FUNNIEST MEMES TC PB

৯ উইকেটে হারিয়ে পঞ্জাবের প্লে-অফের আশায় জল ঢাললো চেন্নাই, সোশ্যাল মিডিয়ায় মিমের ঝড় !

নানা সিনেমার মিম বানিয়ে চলছে ট্যুইট, রিট্যুইট আর কমেন্ট।

নানা সিনেমার মিম বানিয়ে চলছে ট্যুইট, রিট্যুইট আর কমেন্ট।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: IPL ২০২০ সিজনের প্লে-অফে কোয়ালিফাই করার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই জারি রয়েছে। তবে এই দৌড়ে পঞ্জাবের আশা যেন ক্ষীণ হয়ে গেল। আর পঞ্জাবের এই প্লে-অফের আশাকে নিষ্ঠুর ভাবে শেষ করে দেওয়ার কারিগর হল চেন্নাই সুপার কিংস। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই ট্রোল শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পঞ্জাবকে এ ভাবে হারানোর পর চেন্নাই-ফ্যানরা নানা মিমে ভরিয়ে তুলেছেন সোশ্যাল মিডিয়া। তাঁদের কথায়, চেন্নাই আগেই ডুবেছে, এ বার পঞ্জাবকেও ডোবাল!

গতকাল শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে পঞ্জাবকে দম নেওয়ার সুযোগ দেয়নি ধোনির দল। আঁটোসাঁটো বোলিংয়ে প্রথমে পঞ্জাবকে ১৫৩ রানে বেঁধে দেয় তারা। এর পর খুব সহজেই মাত্র একটি উইকেট হারিয়ে ম্যাচ জিতে যায় ডুপ্লেসিস-রাইডুরা। বলা বাহুল্য, গতকাল শুধু বড় রানের ব্যবধানেই ম্যাচ জেতেনি চেন্নাই সুপার কিংস, বরং প্লে-অফের দৌড় থেকে টেনে বের করে দিয়েছে কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে। আর এর পর থেকেই বিষয়টিকে নিয়ে ট্রোল শুরু করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নানা সিনেমার মিম বানিয়ে চলছে ট্যুইট, রিট্যুইট আর কমেন্ট।

প্রসঙ্গত, ধোনির টস ভাগ্য রবিবারও সঙ্গ দেয়। শেখ জায়েদে টসে জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় চেন্নাই সুপার কিংস। আর পরিকল্পনা মতো ১৫০ রানের আশেপাশেই বেঁধে দেয় কিংস ইলেভেনের স্ট্রং ব্যাটিং লাইন-আপকে। রাহুল বা ময়ঙ্ক কেউই তেমন শুরু দিতে পারেননি। ২৯ রান করে আউট হয়ে যান অধিনায়ক কে এল রাহুল। অন্য দিকে, ১৫ বলে ২৬ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন ময়ঙ্ক আগরওয়ালও। আশা ছিল, মিডল অর্ডারে গেইল, পুরন বা মনদীপ সিং ম্যাচের হাল ধরবেন, কিন্তু সেটা সম্ভব হয়নি। মাত্র ১২ রানে ফিরে যান গেইল। ফর্মে থাকা পুরন ফেরেন ২ রানে। ব্যর্থ হন মনদীপও। তবে পরের দিকে দীপক হুডার ৩০ বলে ৬২ রানের জেরে ১৫০-র গণ্ডি পেরিয়ে যায় পঞ্জাব। চেন্নাইয়ের হয়ে লুঙ্গি এনগিডি তিনটি উইকেট নেন। হিসেব করে বল করেন রবীন্দ্র জাদেজাও। অন্য দিকে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল চেন্নাই সুপার কিংস। ফফ দ্যু প্লিসে ৩৪ বলে ৪৮ রান করেন। নটআউট থাকেন ওপেনার ঋতুরাজ গায়কোয়াড়। ৪৯ বলে ৬২ রান করেন তিনি। পরে রাইডুর ৩০ বলে ৩০ রানের সুবাদে সহজেই ম্যাচটি জিতে যায় চেন্নাই।

আবার, রবিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে রাজস্থানকে কার্যত প্লে-অফ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পথ দেখাল কলকাতা নাইট রাইডার্স। কারণ ৬০ রানে ম্যাচটি জিতে যায় মর্গ্যান ব্রিগেড। অধিনায়কের মতোই ইনিংস খেলেন ইয়ন মর্গ্যান। ৩৫ বলে ৬৮ রান করেন তিনি। শুভমন গিলও মন্দ নয়। ২৪ বলে ৩৬ রান করেন তিনি। ২০ ওভার শেষে ১৯১ রান করে কলকাতা। অন্য দিকে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থানের কেউই সে ভাবে টিঁকে থাকতে পারেননি। প্যাট কামিন্স ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে চারটি উইকেট তুলে নেন। মাত্র ১৩১ রানে থেমে যায় রাজস্থানের ইনিংস।

Published by:Piya Banerjee
First published: