corona virus btn
corona virus btn
Loading

বর্ধমানে ব্রায়ান লারা ! আনন্দে আত্মহারা ক্রিকেটপ্রেমীরা

বর্ধমানে ব্রায়ান লারা ! আনন্দে আত্মহারা ক্রিকেটপ্রেমীরা

সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার ব্রায়ান চার্লস লারাকে ঘিরে এদিন বর্ধমানবাসীর উৎসাহ ছিল দেখার মতো।

  • Share this:

#বর্ধমান: বর্ধমান মাতালেন প্রিন্স অফ ত্রিনিদাদ। সুদূর ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ থেকে বর্ধমানে এলেন ক্রিকেটের এই রাজপুত্র। সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার ব্রায়ান চার্লস লারাকে ঘিরে বাসিন্দাদের উৎসাহ ছিল দেখার মতো। বর্ধমানের বাসিন্দাদের উন্মাদনা দেখে আপ্লুত লারাও।

বর্ধমানের মালির মাঠে বসেছে টেনিস ক্রিকেটের আসর। সেই প্রতিযোগিতায় এদিনের মূল আকর্ষণ ছিলেন অবশ্যই ব্রায়ান লারা। হুডখোলা গাড়িতে দু-দু’বার মাঠ প্রদক্ষিণ করেন তিনি। দর্শকদের দিকে হাত নাড়েন । মাঠে উপস্থিত প্রায় ৩৫ হাজার দর্শক বিশ্বমানের এই তারকা ক্রিকেটারকে চোখের সামনে দেখতে পেয়ে আপ্লুত। লারা লারা শব্দে মাঠে কান পাতা দায়। দর্শকরা হাতের সামনে ক্রিকেটের বরপুত্রকে পেয়ে  মোবাইলে ছবি তুললেন। সেলফি উঠলো দেদার। ছিল অটোগ্রাফ নেওয়ারও আকুতি। সাধ্যমতো আবদার মেটালেন তিনি।

গাড়ি থেকেই উঠে দাঁড়িয়ে হাত নেড়ে উৎসাহীদের মন জয় করলেন প্রথমেই। এরপর হুডখোলা গাড়িতে মাঠ প্রদক্ষিণের পর তিনি মাঠের মাঝে গিয়ে ক্রিকেটারদের সঙ্গে পরিচিত হন। তাদের উৎসাহ দেন। এরপর উৎসাহীদের সঙ্গে ছবি তোলেন বেশ কিছুক্ষন।

বর্ধমানে মালির মাঠের এই ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় প্রতিবারই তারকা ক্রিকেটারের বাড়তি আকর্ষণ থাকে। এর আগে এসেছিলেন বিশ্বকাপজয়ী প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক কপিলদেব, দিলীপ বেঙ্গসরকার, হরভজন সিং, গৌতম গম্ভীর। এবার যে প্রাক্তন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ব্রায়ান লারা আসছেন সে প্রচার চলছিল এক মাস আগে থাকতেই। অবশেষে বাসিন্দাদের সে প্রত্যাশা পূরণ হল। ক্রিকেট নিয়ে বর্ধমানবাসীর উন্মাদনা দেখে আপ্লুত লারাও। তিনি বললেন, খেলা বা পরবর্তী সময়ে তিনি অনেকবার কলকাতা এসেছেন। কিন্তু কলকাতার বাইরেও যে ক্রিকেট ঘিরে এতো উন্মাদনা তা এখানে না এলে অনুভব করতে পারতাম না। আধ ঘন্টা মাঠে থাকার কথা ছিল ক্যারিবিয়ান এই ক্রিকেটারের। কিন্তু তিনি প্রায় এক ঘণ্টা ছিলেন মাঠে। বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ মাঠে ঢোকেন তিনি। দর্শকরা ভিড় করেছিলেন সকাল থেকেই। দর্শকদের শত আবদার সত্ত্বেও লারার মুখে ধরা ছিল মিস্টি হাসি। তাতেই খুশি ক্রিকেট প্রেমীরা।

Saradindu Ghosh

First published: January 25, 2020, 8:21 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर