৫ বছর পর বাসে হঠাত্‍ দেখা স্বামীর সঙ্গে, মারতে শুরু করলেন স্ত্রী

৫ বছর পর বাসে হঠাত্‍ দেখা স্বামীর সঙ্গে, মারতে শুরু করলেন স্ত্রী
স্বামীকে বাসে মারধর স্ত্রীর

হতেই পারত বাসের এই দেখা দুজনের কাছেই অনেকটা ভাল লাগার। অভিযোগ মিটিয়ে কাছে আসার, হাতে হাত রাখার। কিন্তু যেটা হল তা দেখে হকচকিয়ে গেলেন বাসের অন্য যাত্রীরা।

  • Share this:

#বর্ধমান: পাঁচ বছর পর বাসে দেখা স্বামীর সঙ্গে। কথায় কথায় শুরু বচসা। বচসা গড়াল মারামারিতে। পুলিশ যতক্ষণে এল ততক্ষণে পোস্টে বেঁধে স্বামীকে মারধরে তৈরি স্ত্রী। সঙ্গে জুটে গেছেন আরও কয়েকজন। অনেকে আবার গোটা ঘটনা মোবাইল বন্দি করতে ব্যস্ত। বর্ধমান থানার সামনে এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় যথেষ্টই।

হতেই পারত বাসের এই দেখা দুজনের কাছেই অনেকটা ভাল লাগার। অভিযোগ মিটিয়ে কাছে আসার, হাতে হাত রাখার। কিন্তু যেটা হল তা দেখে হকচকিয়ে গেলেন বাসের অন্য যাত্রীরা। স্বামী অনিরুদ্ধ করের সঙ্গে বাসে দেখা মিতা করের। ২০০৮ সালে তাঁদের বিয়ে হয়। এক কন্যা সন্তানও আছে তাঁদের। পাঁচ বছর ধরে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা লড়ছেন দু’জনে। বাসের সিটে দেখা মাত্রই স্বামীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন মিতাদেবী। অন্য কয়েকজন যাত্রীও মিতাদেবীর পাশে। বাসেই শুরু মারধর। বর্ধমান থানার সামনে বাস থেকে নামিয়ে অনিরুদ্ধবাবুকে পোস্টে বাঁধা হয়। তারপর আর এক দফা মারধর। মিতাদেবী অবশ্য সবটাই অস্বীকার করেছেন।

বউমার হাতে আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়ে ছেলেকে উদ্ধার করতে থানায় আসেন অনিরুদ্ধর বাবা।

মিতা চাইছেন, দ্রুত মিটুক বিচ্ছেদের মামলা। দ্রুত টাকা পয়সা মিটিয়ে দিন অনিরুদ্ধ।

First published: October 21, 2019, 9:18 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर