• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • WEST BENGAL HOWRAH RED VOLUNTEERS SENT AN AGED PERSON TO HIS HOME NEW MILESTONE ACHIEVED SDG

Howrah News|| ১৩ দিন রাস্তায় পড়ে থাকা অসুস্থ প্রৌঢ় ফিরলেন বাড়ি, রেড ভলেন্টিয়ার্সদের মুকুটে নয়া পালক

Howrah Red Volunteers: রেড ভলেন্টিয়ার্সদের সদস্যদের সাহায্যে ১৭ তারিখ থেকে নিখোঁজ থাকা অসুস্থ প্রৌঢ়কে ফিরে পেল পরিবার। হাওড়ার ঘটনায় নপয়া পালক জুড়ল তাঁদের মুকুটে।

Howrah Red Volunteers: রেড ভলেন্টিয়ার্সদের সদস্যদের সাহায্যে ১৭ তারিখ থেকে নিখোঁজ থাকা অসুস্থ প্রৌঢ়কে ফিরে পেল পরিবার। হাওড়ার ঘটনায় নপয়া পালক জুড়ল তাঁদের মুকুটে।

  • Share this:

#হাওড়া: কখনও দুস্থ রোগীর পাশে, কখনও ওক্সিজেন নিয়ে পৌঁছে যাওয়া মুমূর্ষু রোগীর পাশে, আবার লকডাউনে দুস্থদের মুখে দু-বেলা খাবার তুলে দেওয়া...এই ছিল রেড ভলেন্টিয়ার্সদের (Red Volunteers) রোজনামচা। এ বার সেই রেড ভলেন্টিয়ার্সদের সদস্যদের সাহায্যে ১৭ তারিখ থেকে নিখোঁজ থাকা অসুস্থ প্রৌঢ়কে ফিরে পেল পরিবার।

পশ্চিম হাওড়ার রেড ভলেন্টিয়ার্সের সদস্যরা রবিবার সন্ধ্যায় একটি ফোন পান। জানানো হয়, হাওড়ার কদমতলায় ব্যাটরা পাবলিক লাইব্রেরির সামনে রাস্তার ধারে পরে রয়েছেন এক অসুস্থ প্রৌঢ়। খবর পেয়েই রেড ভলেন্টিয়ার্সদের একটি দল তাঁর কাছে পৌঁছে যায়। অসুস্থ ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা শুরু করে। হাসপাতলে যখন প্রাথমিক চিকিৎসা চলছে, সেই সময় হোয়াটস গ্রুপে একটি ম্যাসেজ দেখে চমকে যান সকলে। দেখা যায়, তাঁরা যে ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছে, তাঁরই মতো দেখতে এক ব্যক্তির পরিবার ছবি-সহ খবরের কাগজে নিখোঁজের বিজ্ঞাপন দিয়েছে। কাগজের সেই ছবি দেখে কিছুটা আন্দাজ করতে পারেন স্বেচ্ছাসেবী দলের সদস্যরা।

রেড ভলেন্টিয়ার সাগরিকা রায় জানান, উদ্ধার করার পরে ওই ব্যক্তিটি এতটাই ট্রমাটাইস ছিলেন, যে ঠিক করে নিজের নাম-ঠিকানা বলতে পারছিলেন না। কাগজের ছবি দেখালেও নিজেকে চিনতে পারছিলেন না। কিছু জিজ্ঞাসা করলে আমাদের মুখের দিকে তাকিয়ে থাকছিলেন। এরপর কাগজে দেওয়া ফোন নাম্বারে ফোন করে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন রেড ভলেন্টিয়ার্সের সদস্যরা। খবর পেয়েই সমীর সাহা নামে এক ব্যক্তি পৌঁছে যান নির্দিষ্ট জায়গায়। হারিয়ে যাওয়া ব্যক্তি সম্পর্কে সমীর সাহার দাদা অসিত কুমার সাহা। চোখের জল ফেলতে ফেলতে সমীর সাহা জানিয়েছেন, দাদা বয়সের ভারে কিছুটা মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন। ১৭ অগাস্ট সকাল থেকে তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। থানায় মিসিং ডাইরি করা থেকে কাগজেও বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু খোঁজ মিলছিল না। দীর্ঘ ১৩ দিন পর খোঁজ মিলল।

এতদিন পরে পরিবারের সদস্যকে দেখে অসিত সাহার চোখের কোনও তখন চিক চিক করছে। সঙ্গে ঠোঁটের কোন মুচকি হাসি। রেড ভলেন্টিয়ার সোমনাথ গৌতম জানান, রাস্তার ধার থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিকে যে তার পরিবারের কাছে ফিরিযে দিতে পারব, তা ভাবতেই পারিনি। দীর্ঘদিনপর দুই ভাইয়ের মিলনে তাদের আবেগ দেখে আমাদের চোখের কোনও আনন্দে ভিজে গিয়েছিল। করোনা কালে অনেক মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। কিন্তু এ ভাবে অসুস্থ হারিয়ে যাওয়া প্রৌঢ়কে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরে আমরা খুশি।

Debasish Chakraborty

Published by:Shubhagata Dey
First published: