ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে জিততে চায় ওষুধ দোকানের কর্মচারীর ছেলে প্রথমকান্তি

ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে জিততে চায় ওষুধ দোকানের কর্মচারীর ছেলে প্রথমকান্তি
বাবা-মায়ের সঙ্গে প্রথমকান্তি ৷ নিজস্ব চিত্র ৷

প্রথমকান্তি অন্তত নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীর ‘অমলকান্তি’ হতে চায়নি ৷ শব্দরূপ জিজ্ঞাসা করলে অবাক হয়ে জানলা দিয়ে তাকিয়ে থাকে না সে ৷ পড়াশোনায় রীতিমতো তুখর এই প্রথমকান্তি ৷

  • Share this:

#নদিয়া: প্রথমকান্তি অন্তত নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীর ‘অমলকান্তি’ হতে চায়নি ৷ শব্দরূপ জিজ্ঞাসা করলে অবাক হয়ে জানলা দিয়ে তাকিয়ে থাকে না সে ৷ পড়াশোনায় রীতিমতো তুখর এই প্রথমকান্তি ৷ ‘অমলকান্তি’র মতো রদ্দুরও হতে চায়নি সে ৷ হতে চায় বিজ্ঞানী ৷ যেখানে গবেষনা করে ক্যান্সারের ওষুধ তৈরি করবে সে ৷ হ্যাঁ, এটাই স্বপ্ন মাধ্যমিক পরীক্ষায় পঞ্চম স্থান অধিকার করে নেওয়া নদিয়ার প্রথমকান্তি মজুমদারের ৷

আরও পডুন: আর্থিক অনটনের মধ্য়েও নিজের জেদে মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় অষ্টম স্থান দখল করল তাপস

বাবা কাজ করেন ওষুধের দোকানে ৷ টেনেটুনেই চলে তাদের তিনজনের সংসার ৷ কিন্তু স্বপ্নটা নিয়ে আজ দৌড়াতে চায় প্রথমকান্তি ৷ মাধ্যমিকের মেধা তালিকায় পঞ্চম স্থানে জ্বলজ্বল করছে কাঁচরাপাড়া হার্নেট হাইস্কুলের প্রথমকান্তির নাম ৷ ঝুলিতে রয়েছে ৬৮৫ নম্বর ৷

কেমন লাগছে এই সাফল্যে ? লাজুক হেসে প্রথমকান্তি জানায়, সে খুব খুশি ৷ ছেলের প্রাপ্ত নম্বর নিয়ে এতটা আশা না করলেও ভাল ফলের প্রত্যাশা ছিল প্রথম থেকেই, জানালেন প্রথমকান্তির বাবা-মা ৷

বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা শেষ করে ক্যান্সার নিয়ে গবেষণা করতে চায় প্রথমকান্তি ৷ সংসারে অনটন থাকলেও ছেলের পড়াশোনার সঙ্গে কোনও আপোস করতে চান না মজুমদার দম্পতি ৷

First published: 05:16:41 PM Jun 06, 2018
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर