Home /News /south-bengal /
হাওড়ায় ক্লোরিন গ্যাস লিক: গঙ্গা দূষণের দায় কার? দমকল-পুলিশ চাপানউতোর

হাওড়ায় ক্লোরিন গ্যাস লিক: গঙ্গা দূষণের দায় কার? দমকল-পুলিশ চাপানউতোর

ganga pollution

ganga pollution

হাওড়ায় ক্লোরিন গ্যাস লিক: গঙ্গা দূষণের দায় কার? দমকল-পুলিশ চাপানউতোর

  • Share this:

     #হাওড়া: বিপত্তি এড়াতে কী কাণ্ডহীন পুলিশ? বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাসের ট্যাঙ্কার জগন্নাথ ঘাটের গঙ্গার ফেলার পরামর্শ কার? তাই নিয়ে শুরু হয়েছে দমকল-পুলিশ চাপানউতোর। বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাসে ইতিমধ্যেই অসুস্থ বেশ কয়েকজন হাসপাতালে ভর্তি। ক্লোরিনের প্রভাবে দূষণের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে জলজ প্রাণ, মত বিশেষজ্ঞদের।

    হাওড়ার ঘুসুড়িতে লোহাকাটার কারখানায় ক্লোরিন গ্যাস লিক হয়। দমকল ও বেলুড় থানার পুলিশ মিলে সেই ট্যাঙ্কার তুলে এনে ফেলে জগন্নাথ ঘাট এলাকায়।

    সিঁড়ি দিয়ে গড়ানোর সময়ে আচমকা ট্যাঙ্কার ফেটে গ্যাস বেরোতে শুরু করে। মূহূর্তে সবুজ হয়ে যায় গঙ্গার জল। গ্যাসের তীব্রতায় অসুস্থ হয়ে পড়েন অনেকে। পুলিশ ও বেলুড় থানার পুলিশকর্মীদের ঘিরে শুরু হয় বিক্ষোভ। বিষাক্ত ক্লোরিনের ট্যাঙ্কার গঙ্গায় ফেলার সিদ্ধান্ত কার? উঠতে শুরু করে প্রশ্ন। একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তোলে দমকল ও পুলিশ।

    বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাসের প্রভাবে রঙ বদলাতে শুরু করে কচুরিপানা। ক্লোরিনের প্রভাবে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে জলজ প্রাণীর, বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

    ক্লোরিন নষ্ট করে দেয় প্রাণী জগতের ভারসাম্য। যেতে পারে প্রাণও। মত প্রাণী বিদ্যা বিভাগের বিশেষজ্ঞদের। বাড়ছে আশঙ্কা। ফরেনসিক ল্যাবে পাঠানো হচ্ছে ট্যাঙ্কারটি । আপাতত গঙ্গার জল ব্যবহার বন্ধ রাখা হয়েছে। কচুরিপানা ও গঙ্গার জলের নমুনা পাঠানো হচ্ছে পরীক্ষার জন্য।

    First published:

    Tags: Chlorine, Chlorine tanker in ganga, Ganga Pollution

    পরবর্তী খবর