• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • বউকে আটকে রেখেছে শ্বশুরবাড়ির লোক! স্ত্রী’কে ফেরানোর দাবিতে ধর্নায় বসলেন জামাই

বউকে আটকে রেখেছে শ্বশুরবাড়ির লোক! স্ত্রী’কে ফেরানোর দাবিতে ধর্নায় বসলেন জামাই

স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে, রবিবার গভীর রাত থেকে স্ত্রী’র বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন স্বামী।

স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে, রবিবার গভীর রাত থেকে স্ত্রী’র বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন স্বামী।

স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে, রবিবার গভীর রাত থেকে স্ত্রী’র বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন স্বামী।

  • Share this:

    Ranjit Sarkar

    #নদিয়া: বউ ফেরতের দাবিতে শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্না জামাইয়ের, নদিয়ার হরিণঘাটা থানা এলাকার ঘটনা। দু’মাস আগে রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করা স্ত্রী’কে জোর পূর্বক আটকে রাখার দরুন, স্ত্রীকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে রাতভর শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্নায় বসেছেন স্বামী।ঘটনাটি নদিয়ার হরিণঘাটা থানা এলাকার সোনাখালি গ্রামের। জানা যায়, বিরহি হালদার পাড়ার বাবু মল্লিক নামে বছর আঠাশের এক যুবক গত অগাস্ট মাসের তিন তারিখে রেজিস্ট্রি করে বিয়ে করেন সঙ্গীতা ঘোষ নামে সোনাখালি গ্রামের ১৮ বছরের এক তরুণীকে।

    অভিযোগ, বিয়ের পর নিজের বাড়িতে সঙ্গীতা চলে যাওয়ার পর, সেইদিনই সঙ্গীতাকে বাড়িতে আটকে রাখা হয়। স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় শ্বশুরবাড়ির লোকজন। মাসখানেক আগে সম্পূর্ণভাবে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর স্ত্রীকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে, রবিবার গভীর রাত থেকে স্ত্রী’র বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন স্বামী।তাঁর দাবি গত ৩ অগাস্ট রেজিস্ট্রি করার পাশাপাশি মন্দিরে গিয়ে সামাজিক মতে বিয়ে করেছেন তাঁরা। এমতাবস্থায় মেয়ের বাড়ির পরিজনেরা জোরপূর্বক তাঁকে গৃহবন্দি করে রেখেছেন। স্ত্রী’কে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি তুলে প্ল্যাকার্ড এবং বিয়ের বেশ কয়েকটা ছবি সামনে রেখে স্ত্রী’র বাপের বাড়ির সামনে ধর্নায় বসেন স্বামী।

    এই ঘটনা জানাজানি হতেই সকাল থেকে ওই এলাকায় উৎসুক মানুষের ভিড় বেড়ে চলে। যদিও এই ঘটনায় ধর্নায় বসা ওই যুবকের শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দাবি, মেয়েকে কোথাও লুকিয়ে রাখা হয়নি। সে আত্মহত্যা করতে গিয়েছিল। তাই তাকে অন্য জায়গায় রাখা হয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত নিজের স্ত্রী’কে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে না পারবেন, ততক্ষন পর্যন্ত ধর্নায় অনড় থাকবেন বলে স্থির করেছেন ওই যুবক ।

    Published by:Simli Raha
    First published: