নাবালিকাকে ধর্ষণ করে খুন, ৭ মাস পর উদ্ধার দেহাবশেষ

নাবালিকাকে ধর্ষণ করে খুন, ৭ মাস পর উদ্ধার দেহাবশেষ
Representational Image
  • Share this:

#বাসন্তী: প্রায় সাতমাস নিখোঁজ থাকার পর উদ্ধার হল নাবালিকার দেহাবশেষ। বারো বছরের স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে গ্রেফতার প্রতিবেশী যুবক। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বাসন্তীর পূর্ব বয়ার সিং এলাকায়।

বাসন্তীর পূর্ব বয়ার সিং গ্রামের বাসিন্দা গোবর্ধন মণ্ডলের মেয়ে সুজাতা। কাকদ্বীপের একটি হস্টেলে থেকে পড়াশোনা করত সে। গত বছর দুর্গাপুজোর সময় ক’দিনের জন্য বাড়ি এসেছিল সুজাতা। নবমীর সন্ধেয় পাড়ারই এক দাদার সঙ্গে গিয়েছিল ঠাকুর দেখতে। তারপর থেকেই নিখোঁজ বারো বছরের স্কুলছাত্রী।

সুজাতা নিখোঁজ হওয়ার পর বাসন্তী থানায় ডায়েরি করেন গোবর্ধন। চাইল্ড লাইনেও বিষয়টি জানান তাঁরা। তদন্তে উঠে আসে, ঘটনার দিন প্রতিবেশী সনাতন সর্দার ওরফে বুলেটের সঙ্গে মেলার মাঠের দিকে গিয়েছিল সুজাতা।

দিন সাতেক আগে সনাতনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের দাবি, সনাতনই সুজাতাকে ধর্ষণ করার পর গলা টিপে খুন করে। তারপর ধানখেতের মধ্যে একটি খেঁজুর গাছের পাশে গর্ত খুঁড়ে পুঁতে দেয়।

বুধবার সকালে সনাতনকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। উদ্ধার হয় সুজাতার দেহাবশেষ। মেয়ের এমন পরিণতিতে শোকস্তব্ধ গোবর্ধন। সুজাতার দেহাবশেষ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন তার মা মন্দা। দু’জনেই দোষীর কঠোর শাস্তি দাবি করেছেন।

First published: April 24, 2019, 2:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर