রাতের অন্ধকারে গ্রামের মানুষকে না জানিয়ে ভিনরাজ‍্যের শ্রমিকদের এলাকায় কোয়ারেন্টইন!!

গ্ৰামবসীদের দাবি এরা সব সংক্রমিত ব্যাক্তি জনবসতি এলাকায় এদের রাখলে সংক্রমণ ছড়াবে এলাকায়৷

গ্ৰামবসীদের দাবি এরা সব সংক্রমিত ব্যাক্তি জনবসতি এলাকায় এদের রাখলে সংক্রমণ ছড়াবে এলাকায়৷

  • Share this:

    #দেগঙ্গা: রাতের অন্ধকারে গ্রামের মানুষকে না জানিয়ে ২০জন ভিনরাজ‍্যের শ্রমিককে ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় এক উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে কোয়ারান্টায়ন করা নিয়ে উত্তেজনা দেগঙ্গার চাঁপাতলা পঞ্চায়েতের খরুয়া চাঁদপুর গ্ৰামে৷ ভাঙা হল তালা৷ ঘটনাস্থলে দেগঙ্গা থানার পুলিশ।

    সকাল হতেই উত্তেজিত জনতা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের তালা ভেঙে ভীনরাজ্যের এবং বাইরের জেলার কোয়ারান্টাইন সেন্টারে থাকা শ্রমিকদের বাইরে করে দেওয়ার চেষ্টা করে৷ ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রশাসনের উপর। ঘটনাস্থলে আসে দেগঙ্গা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। পুলিশকে দেখে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে এলাকার পুরুষ মহিলারা। কোয়ারিন্টাইনে থাকা ব্যক্তিরা জনতার বিক্ষোভে আতঙ্কিত হয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন৷ তাদের দাবি প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদের খাবার কোনও ব্যাবস্থা না করে এখানে রেখে দিয়ে চলে গিয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমসিম খেতে হয় পুলিশকে।

    গ্ৰামবসীদের দাবি এরা সব সংক্রমিত ব্যাক্তি জনবসতি এলাকায় এদের রাখলে সংক্রমণ ছড়াবে এলাকায়৷ অবিলম্বে তাদেরকে এলাকা থেকে নিয়ে যাওয়ার দাবি জানাতে থাকেন গ্ৰামবাসীরা। ঘন্টা চারেক বিক্ষোভ চলার পর প্রশাসনের তরফে অন্য যায়গায় ২০ জনকে স্থানান্তর করার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। ২০ জনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে যান চিকিৎসকরা।

    Published by:Pooja Basu
    First published: