Digha after Yaas: বিধ্বস্ত দিঘা যেন শ্মশানপুরী, সৈকত সুন্দরী’র চেহারা দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন পর্যটকরা

ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের পর দিঘার বর্তমান পরিস্থিতি । নিজস্ব চিত্র ।

এখনও সি-বিচ বরাবর ছড়িয়ে রয়েছে বড় বড় পাথর। বিদ্যুতের তার, উপড়ে যাওয়া গাছ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ১৫০০ স্টল। সাজানো গোছানো মেরিন ড্রাইভ, বিশ্ববাংলা উদ্যোগ সমস্ত কিছু ভেঙে তছনছ হয়ে গিয়েছে।

  • Share this:

ABIR GHOSHAL

#দিঘা: সাইক্লোন নাকি ভূমিকম্প? দিঘা শহরের চেনা ছবি পালটে গিয়েছে। চোখের সামনে যে দিঘা দেখা যাচ্ছে তাতে মানুষের মনে প্রশ্ন এমনও হয়।সাইক্লোন কেড়ে নিয়েছে দিঘার সৌন্দর্য্য। তবুও সেই দিঘাই টানছে পর্যটক। শুক্রবার সকাল থেকেই দিঘার ধ্বংসস্তূপ দেখার জন্য বাইক ও ছোট গাড়ি নিয়ে হাজির হচ্ছেন পর্যটকরা। জলচ্ছ্বাসে ক্ষতবিক্ষত দিঘার বিভিন্ন ঘাটে সেলফিও তোলেন তাঁরা। এখনও সি-বিচ বরাবর ছড়িয়ে রয়েছে বড় বড় পাথর। বিদ্যুতের তার, উপড়ে যাওয়া গাছ ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ১৫০০ স্টল। সাজানো গোছানো মেরিন ড্রাইভ, বিশ্ববাংলা উদ্যোগ সমস্ত কিছু ভেঙে তছনছ হয়ে গিয়েছে।

বৃহস্পতিবার থেকেই শুরু হয়েছে ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ। নেহরু মার্কেট এলাকা অনেকটাই পরিষ্কার হলেও পুরো ধ্বংসস্তূপ সরাতে সময় লাগবে বেশ খানিকটা। বিধান মার্কেটের রাস্তা জুড়ে জমে আছে কাদা আর পলির স্তর। কোথাও কোথাও পড়ে আছে পেন, ব্যাগ। চেনা দিঘা ফের কবে ‘সৈকত সুন্দরী’র রূপ ফিরে পাবে, সেই প্রশ্ন নিয়েই অবশ্য ঘুরছেন পর্যটকরা। বিশ্ববাংলা ঘাট থেকে একেবারে উদয়পুর পর্যন্ত সৌন্দর্যায়নের চাদরে মোড়া ছিল দিঘা। পাথরে মোড়া সি-বিচ, সুদৃশ্য আলো দিঘার আকর্ষণকে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছিল। জলচ্ছ্বাসে সেসব লণ্ডভণ্ড হয়ে গিয়েছে। এখন পাথর উপড়ে যাওয়া সি-বিচের উপর জলের তোড়ে ছুটে আসা সারি সারি বোল্ডার, আর সৌন্দর্যায়নের জন্য নির্মিত পরিকাঠামোর এ যেন ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত কোনও এলাকা। এই দিঘা পর্যটকদের কাছে অচেনা। নিউ দিঘার ঘাটে ঘুরছিলেন হলদিয়ার অনন্যা চক্রবর্তী। তিনি বলেন, চেনা দিঘাকে এভাবে দেখে খুবই কষ্ট হচ্ছে। আশা করব, রাজ্য সরকারের উদ্যোগে শীঘ্রই দিঘা পুরনো অবস্থায় ফিরবে। এদিন দিঘার আকাশ অবশ্য পরিষ্কার ছিল। মুখ্যমন্ত্রী আসছেন তাই রাস্তা পরিষ্কার করা হয়েছে। এর মধ্যেই পরিবারকে সঙ্গে নিয়ে দিঘায় এসে হাজির হন তমলুকের শুভব্রত মন্ডল। তিনি বলেন, আমরা প্রায়ই দিঘায় আসি। বুধবার টিভির পর্দায় দিঘার সমুদ্রের ভয়ঙ্কর জলচ্ছ্বাসে চেহারা দেখেছি। তাই কী অবস্থা হয়েছে দেখার জন্য চলে এলাম একবার। প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে শুধু দিঘা নয়, এখানকার ব্যবসায়ী, ছোট দোকানদার থেকে হোটেল ব্যবসায়ী, প্রত্যেকেই বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতির শিকার। দিঘার এমন ভাঙাচোরা চেহারা দেখে মন খারাপ হয়ে যাচ্ছে সকলের।

রাজ্য সরকারের হাত ধরে গত দশ বছর ধরে দিঘা একটু একটু করে নতুন রূপে সেজে উঠেছিল। কিন্তু, একটা প্রাকৃতিক বিপর্যয় সেই রূপ কেড়ে নিয়েছে দিঘার। শুক্রবার নিউ দিঘায় ডি এস ডি এ'র সামনে দাঁড়িয়েছিলেন এক সরকারি আধিকারিক। তিনি বলেন, ‘ভয়ঙ্কর জলচ্ছ্বাসে চারদিকে শুধুই ধ্বংসের ছবি। সৈকত সুন্দরী দিঘা আবার আগের রূপে ফিরে আসুক। এটাই আমাদের সকলের কামনা।’  পর্যটকদের পাশাপাশি বহু স্থানীয় মানুষকেও দিঘার বিশ্ববাংলা ঘাট, জগন্নাথ ঘাট, মেরিনাঘাট, ক্ষণিকাঘাট, যাত্রানালা, ঢেউসাগর, উদয়পুর ঘাটে দেখা গিয়েছে। প্রকৃতির ধ্বংসলীলা চাক্ষুষ করেছেন। মোবাইল বন্দি করে রেখেছেন দিঘার এই রুপ। কিন্তু পর্যটন কেন্দ্র ঘোরার সেই উচ্ছ্বাস, সেই আনন্দ কারও চোখেমুখে অবশ্য নেই। শ্রীহীন দিঘার হতশ্রী রূপ দেখে সবাই ভীত। এমনও হয়, অনেকে তা এখনও বিশ্বাস করতে পারছেন না।

Published by:Simli Raha
First published: