Home /News /south-bengal /
Renu Khatun || নার্সের চাকরিতে যোগ দিতে চাওয়ায় হাত কেটে দেয় স্বামী! সেই রেণু খাতুনকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন মুখ্যমন্ত্রী

Renu Khatun || নার্সের চাকরিতে যোগ দিতে চাওয়ায় হাত কেটে দেয় স্বামী! সেই রেণু খাতুনকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন মুখ্যমন্ত্রী

Renu Khatun || রেণু বলেন, "মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছে পূরণ হল। তিনি আশীর্বাদ করলেন। আরও সাহস পেলাম।"

  • Share this:

#বর্ধমানে: 'লড়াই চালিয়ে যাও। জীবনে এগিয়ে যাও। আমরা তোমার পাশে আছি।' রেণু খাতুনকে জড়িয়ে ধরে বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন কেতুগ্রামের সেই সেবিকা। ইচ্ছেপূরণ হওয়ায় আপ্লুত রেণু।

সোমবার বর্ধমানের নবাবহাট লাগোয়া গোদায় হেল্থ সিটির মাঠে সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আসন্ন খরিফ মরশুমে রাজ্যের ৮৯ লক্ষ কৃষককে নতুন কৃষকবন্ধু প্রকল্পে মোট ২৩৮৫ কোটি টাকা দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের শস্য ভান্ডার পূর্ব বর্ধমানে সেই প্রকল্পের সূচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি এদিন রাজ্যের কৃষকদের সম্মান জানানোর পাশাপাশি কৃষকদের জন্য বিভিন্ন প্রকল্পের সহায়তা প্রদান করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিন দিনের দুই বর্ধমান জেলা সফরে এসেছেন মমতা। এদিনের সভার পর তিনি দুর্গাপুরে যান। মঙ্গলবার আসানসোলে রাজনৈতিক সভা করবেন তিনি। লোকসভা উপনির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই জন্য আসানসোলবাসীকে তিনি ধন্যবাদ জানান।

আরও পড়ুন: রাতে এল ফোন, সকালেই দিল্লি পৌঁছানোর নির্দেশ! সুকান্তকে নিয়ে বিজেপিতে শোরগোল

হেলিপ্যাড তৈরি থাকলেও এ দিন সড়ক পথে বর্ধমানে আসেন মুখ্যমন্ত্রী। গাড়ি থেকে নামার পর  সভাস্হলে ঢুকেই রেণু খাতুনের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। নার্সের চাকরিতে যোগ দিতে চাওয়ায় তাঁর স্বামী হাত কেটে দেয় বলে অভিযোগ। মুখ্যমন্ত্রী আগেই তাঁর পাশে থাকার কথা ঘোষণা করেছিলেন। তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছে পুলিশ প্রশাসন।

এদিন রেণুকে কাছে পেয়েই জানতে চান, "কেস করেছো তো? লড়াই চালিয়ে যাও।" পাশেই ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার কামনাশিস সেন, জেলা শাসক প্রিয়াঙ্কা সিংলা। পুলিশ যে রেণু খাতুনকে সবরকমভাবে সহযোগিতা করছেন তা বুঝিয়ে দেন জেলা পুলিশ সুপার। রেণু বলেন, "মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার ইচ্ছে পূরণ হল। তিনি আশীর্বাদ করলেন। আরও সাহস পেলাম।"

শরদিন্দু ঘোষ 
Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: Renu Khatun

পরবর্তী খবর