হাওড়ায় স্বামীকে মাথা থেঁতলে খুন করল 'বৃহন্নলা' স্ত্রী

হাওড়ায় স্বামীকে মাথা থেঁতলে খুন করল 'বৃহন্নলা' স্ত্রী
স্বামীকে মাথা থেঁতলে খুন

মৃতদেহ উদ্ধার করে তদন্ত শুরু করেছে বাঁকড়া থানার পুলিশ৷ মৃতের নাম সুনীল, পেশায় টোটো চালক৷ কয়েক মাস আগেই বাবলির সঙ্গে বিয়ে হয় বালিটিকুরির বাসিন্দা সুনীলের৷

  • Share this:

Debasish Chakraborty

#বাঁকড়া: টাকা পয়সা নিয়ে গণ্ডগোলে স্বামীকে মাথা থেঁতলে খুন করলো স্ত্রী৷ খুনের পর নিজেই প্রতিবেশীদের ডেকে খুনের কথা স্বীকার করে থানায় আত্মসমর্পণও করলেন বাঁকড়ার বাসিন্দা বাবলি৷ স্ত্রী বৃহন্না সম্প্রয়াদের বলে জানা গিয়েছে৷

মৃতদেহ উদ্ধার করে তদন্ত শুরু করেছে বাঁকড়া থানার পুলিশ৷ মৃতের নাম সুনীল, পেশায় টোটো চালক৷ কয়েক মাস আগেই বাবলির সঙ্গে বিয়ে হয় বালিটিকুরির বাসিন্দা সুনীলের৷ প্রতিবেশীরা জানান, বাবলি এলাকার বৃহন্নলা সম্প্রদায়ের সদস্য ছিলেন৷ কাজে বেরিয়ে সুনীলের সঙ্গে আলাপ হয় বাবলির৷ সেখান থেকেই প্রেম ও বিয়ে করেন দুজনে৷ সুনীল আদতে জগৎবল্লভপুরের বাসিন্দা৷ বছর পাঁচেক হল বালিটিকুরি এলাকায় বসবাস শুরু করতেন৷

পুলিশি জেরায় বাবলি বলে, 'বিয়ের পর থেকেই সুনীল সে ভাবে কোনও কাজ করতো না৷ আমার রোজগারের টাকায় বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে সারাদিন ফুর্তি করত ৷ বাধা দিলে লোকজন নিয়ে এসে হামলা চালাতো সুনীল ও তার সাকরেদরা৷' বাবলি জানায়, স্বামী ও তাঁর বন্ধুদের এই কাজকর্মের জন্য তার সম্প্রদায় ক্রমশই তাকে দূরে ঠেলে দিচ্ছিল৷ সেই রাগ থেকেই শনিবার সন্ধ্যায় স্বামীকে খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে খাইয়ে তারপর ভারী কিছু দিয়ে তার মুখ থেঁতলে খুন করে সে৷ প্রথমে দেহ লোপাট করার পরিকল্পনা থাকলেও পরে সিদ্ধান্ত বদলে নিজেই আত্মসমর্পণ করে৷

মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়ে খুনের ঘটনার শুরু করেছে পুলিশ৷ বাবলি একাই তার স্বামীকে খুন করল না, নাকি এর পিছনে আরও কারও হাত ছিল, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

আরও ভিডিও:

First published: 09:07:20 AM Dec 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर