শাসক দলের প্রার্থী করতে নেতার নামে সুপারিশ সোশ্যাল মিডিয়ায়!শোরগোল বর্ধমানে

শাসক দলের প্রার্থী করতে নেতার নামে সুপারিশ সোশ্যাল মিডিয়ায়!শোরগোল বর্ধমানে

বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের দুবারের বিধায়ক রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়। তিনি আর প্রতিদ্বন্দিতা করবেন না বলে কয়েকদিন আগেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। তার আগে থেকেই এই কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন অনেক নেতাই।

বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের দুবারের বিধায়ক রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়। তিনি আর প্রতিদ্বন্দিতা করবেন না বলে কয়েকদিন আগেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। তার আগে থেকেই এই কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন অনেক নেতাই।

  • Share this:

#বর্ধমান: খোকন দাসকে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে চেয়ে আগেই ব্যানার পড়েছিল বর্ধমান শহরে। এবার সেই দাবি তোলা হলো সোশ্যাল মিডিয়ায়।সেখানে বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে খোকন দাসের নাম প্রস্তাব করছেন অনেকেই। বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে খোকন দাসকে দেখতে চাই, লেখা হচ্ছে এমনটাই। প্রার্থী তালিকা ঘোষণার মুখে এই ধরনের ব্যানার পোস্টার চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যের শাসক দলের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যেই। দলে খোকন বিরোধী বলে পরিচিত নেতা কর্মীরা বলছেন, হালে পানি না পেয়ে এসব করাচ্ছে খোকন দাসের অনুগামীরা। খোকন দাস অবশ্য জানিয়েছেন কারা এই ধরণের ব্যানার-পোস্টার দিয়েছে তা জানা নেই কে প্রার্থী হবে তা দলনেত্রী ঠিক করবেন।

দু'দিন আগেই হিন্দিভাষী সমাজের নামে খোকন দাসকে প্রার্থী হিসেবে চেয়ে ফেস্টুন, পোস্টারে ছেয়ে দেওয়া হয়েছিল বর্ধমান শহরের বিভিন্ন এলাকা। তা নিয়ে তোলপাড়ের মাঝেই এবার একই আবেদন দেখা যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই ঘটনায় অস্বস্তিতে বর্ধমান পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর খোকন দাস নিজেও। তিনি বলেন,কে বা কারা এই ধরনের ব্যানার-পোস্টার দিচ্ছে বা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিচ্ছে তা আমার জানা নেই। তবে আমার অনুগামীদের কেউ এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নয়। নেত্রী নির্ভর দল আমাদের। দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করবেন। যিনিই প্রার্থী হোন না কেন তাঁর সমর্থনে আমরা কর্মীরা সকলেই ঝাঁপিয়ে পড়ব।

বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের দুবারের বিধায়ক রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়। তিনি আর প্রতিদ্বন্দিতা করবেন না বলে কয়েকদিন আগেই দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন। তার আগে থেকেই এই কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন অনেক নেতাই। কে প্রার্থী হচ্ছেন তা নিয়ে দলের কর্মী নেতাদের মধ্যে জল্পনার শেষ নেই। তার মধ্যেই খোকন দাসকে প্রার্থী হিসেবে চেয়ে ব্যানার পোস্টারে শহরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

বর্ধমান পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর তথা জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক খোকন দাসকে প্রার্থী চেয়ে ফেস্টুন টাঙানোর বিষয়ে জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন, কারও ভাল লাগা থেকে কেউ পোস্টার, ফেস্টুন দিতেই পারে। কিন্তু আমাদের দলে ওইভাবে কেউ প্রার্থী হয় না। প্রার্থী ঠিক করেন আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জেলা বিজেপির সাধারন সম্পাদক শ্যামল রায় কটাক্ষ করে বলেন, এটাই তৃণমূলের সংস্কৃতি। তাদের নেত্রী যেমন মঞ্চে দাড়িয়ে প্রার্থী ঘোষণা করেন ,তেমনই কর্মীরা বিধানসভার প্রার্থী ঘোষনা করছেন। তৃণমূলে দলের থেকে ব্যক্তি বড়। এসব ঘটনা তা প্রমাণ করছে।

Published by:Pooja Basu
First published:

লেটেস্ট খবর