দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বীরভূম থেকে গ্রেফতার জামতারা গ্যাং ! ১০ শতাংশ কমিশনে অ্যাকাউন্ট ভাড়া নিয়ে চলছিল টাকা চুরির কাজ

বীরভূম থেকে গ্রেফতার জামতারা গ্যাং ! ১০ শতাংশ কমিশনে অ্যাকাউন্ট ভাড়া নিয়ে চলছিল টাকা চুরির কাজ

ধৃতরা প্রায় ১ বছর ধরে এই কাজের সাথে যুক্ত। গত ১৫ দিনে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার লেনদেন করেছে তারা।

  • Share this:

#বীরভূম: জামতারা গ্যাং এর  ২ সদস্য গ্রেফতার বীরভূম থেকে। দিল্লি পুলিশের সাইবার ক্রাইমের একটি টিম এসে তাদের বীরভূমের রাজনগর থানা এলাকার মুক্তিপুর ও বাঁশবুড়ি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে। দুটি গ্রামই ঝাড়খন্ড লাগোয়া। অন্যদিকে ঝাড়খন্ডের জামতারাতে এই ঘটনায় ধৃত ২ জনকে  জেরা করেই বীরভূমের এই দু জনের সন্ধান মেলে।  দিল্লি পুলিশের সাইবার ক্রাইম সূত্রে খবর জামতারাতে পুলিশ সক্রিয় হওয়ার পর থেকে জামতারা গ্যাং এর টার্গেট ঝাড়খন্ড সংলগ্ন বীরভূম,  আসানসোল,  দুর্গাপুর,  পাটনা ও কোলকাতা,   দিল্লি,  মুম্বই-এর মতো জায়গা। বিভিন্ন জায়গায় এজেন্ট নিয়োগ করেছে জামতারা গ্যাং। যারা বিভিন্ন ব্যাক্তির ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা লেনদেন করে ১০ শতাংশ কমিশন পায়। সেই টাকা সংগ্রহ করে জামতারাতে পৌছে দেওয়া হয় বিভিন্ন ধরনের যানবাহন ব্যবহার করে।

সম্প্রতি দিল্লির এক ব্যাক্তির ব্যাংক একাউন্ট থেকে ৬৩ হাজার টাকা উধাও এর ঘটনায় পুলিশ জামতারা ও বীরভূম থেকে গ্রেফতার করেছে এদের। আরও জানা গিয়েছে  ৪ টি ধাপে কাজ করে এরা। প্রথম ধাপের কাজ করে অ্যাকাউন্ট প্রোভাইডার, যে অ্যাকাউন্টে টাকা এসে জমা হবে। দ্বিতীয় ধাপে টার্গেট ব্যক্তিকে ফোন করে মহিলা টেলিকলার। ও টার্গেটের মোবাইলে ম্যালওয়ার SMS এর মাধ্যমে পাঠিয়ে ওই মোবাইলের রিমোট অ্যাকসেস নেওয়া হয়,  রিমোট অ্যাকসেস নেয় জামতারা গ্যাং এর টেকনিক্যাল টিম। ওই মোবাইলের মেল আই ডি,  ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের উপর কব্জা করে টাকা ট্রান্সফার করা হয়। তৃতীয় ধাপে যার অ্যাকাউন্টে টাকা এল, তাকে ১০ শতাংশ কমিশন দিয়ে টাকা সংগ্রহ করা হয়। চতুর্থ ধাপে বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের থেকে সংগ্রহ করা টাকার পরিমান ১০ লক্ষ হয়ে গেলে তা জামতারা গ্যাং এর হাতে পৌঁছে দিয়ে আসা হয়। এই কাজ করে জামতারা গ্যাং এর নিযুক্ত লোক। বীরভূমে ধৃতদের কাছে থেকে পশ্চিমবঙ্গের ১৫০ টি মতো অ্যাকাউন্ট পাওয়া গেছে যে সব অ্যাকাউন্টে টাকা লেনদেন হয় কমিশনের ভিত্তিতে।  ধৃতদের আজ সিউড়ি আদালতে তোলা হয় ।  এরপর তাদের দিল্লির রোহিনী আদালতে তোলা হবে। ধৃতরা প্রায় ১ বছর ধরে এই কাজের সাথে যুক্ত। গত ১৫ দিনে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার লেনদেন করেছে তারা।

SUPRATIM DAS

Published by: Piya Banerjee
First published: August 27, 2020, 4:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर