নজরবন্দিতেও বহাল তবিয়তে কেষ্ট, ভোটের দিন কীভাবে কাটালেন অনুব্রত মণ্ডল?

নজরবন্দিতেও বহাল তবিয়তে কেষ্ট, ভোটের দিন কীভাবে কাটালেন অনুব্রত মণ্ডল?
  • Share this:

#বীরভূম: দিনভর নজরবন্দি। অনুব্রত মণ্ডলকে অনুসরণ কমিশনের। ভোটের দিন কীভাবে কাটালেন তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি? কাজ করল নকুলদানা বা পাচন দাওয়াই? অনুব্রতর স্ট্রেট ড্রাইভ, লড়াইয়ে জিতবে নকুলদানাই।

বোলপুর ও বীরভূম। এই দুই লোকসভা আসনের ভরকেন্দ্র যেন বোলপুরের নিচুপট্টি।

এ যেন ২০১৬ বিধানসভা ভোটের পুনরাবৃত্তি। কমিশনের নির্দেশে রবিবার থেকেই নজরবন্দি অনুব্রত মণ্ডল।

ভোটের আগের দিন থেকে কমিশনের বেড়ি। তবে তাতে দমার পাত্র নন অনুব্রত। সাংবাদিক বৈঠক শেষ করেই, ভোট দিতে দলীয় কর্মীর বাইকে সওয়ার তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি। অনুব্রতকে অনুসরণ করলেন অন্যান্যরাও। বাড়ির কাছেই ভগবত নিম্ন বুনিয়াদি বিদ্যালয়ে বুথ। ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে পৌঁছতেই সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে তিনি।

বুথ থেকে বেরোতেই নকুলদানা ও পাচন মন্তব্য নিয়ে প্রশ্নের ঝড়। ঠান্ডা গলায় তার উত্তর দিলেন তৃণমূলের ক্যাপ্টেন কুল।

বুথ থেকে বেরিয়ে বোলপুরে দলীয় কার্যালয়ে যান অনুব্রত। ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেটের কাজে জমা তাঁর মোবাইল ফোন। তাতে অবশ্য পরোয়া নেই। ল্যান্ডলাইন বা অন্যান্য ফোনে চালু মেশিনারি। ভোটের খবর নিতে ল্যান্ডফোনেই কাজ সারলেন অনুব্রত।

বাড়ি থেকে রাজপথ হয়ে ভোটকেন্দ্র। দিনভর অনুব্রতকে অনুসরণ কমিশনের। কিন্তু, আচমকা ছন্দপতন। বোলপুর পার্টি অফিসে যাওয়ার পথে ঘণ্টাখানেক দেরি হল কমিশন নিযুক্ত ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেটের।

First published: April 29, 2019, 2:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर