corona virus btn
corona virus btn
Loading

এখানে সাড়ে ৩ মাস ঠায় দাঁড়িয়ে আছেন মা কালী ! কেন জানেন?

এখানে সাড়ে ৩ মাস ঠায় দাঁড়িয়ে আছেন মা কালী ! কেন জানেন?

শান্তি দে'র আইনজীবী সৌগত মিত্রের কথায়, " অবিলম্বে মৃন্ময়ী কালী প্রতিমা সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এরজন্য পুলিশি ব্যবস্থ?

  • Share this:

#পুরুলিয়া: এখানে সাড়ে তিন মাস ঠায় দাঁড়িয়ে কালীপ্রতিমা। কেন জানেন?  রইল বিস্তারিত। অন্ধকার ঘোচাতে আলোর আরাধনায় মাতি আমরা। কালীপুজোর পর কেটে গেছে পাক্কা সাড়ে তিন মাস। তবু এখনও বিসর্জন দেওয়া যায়নি প্রতিমাকে।

পুরুলিয়া শহরের ভাগাবাঁধ পাড়া এলাকার ঘটনা। স্থানীয় ক্লাব মাতৃ সেবক সংঘ পুজো পরিচালনার দায়িত্বে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, যে জলাশয়ে কালিঠাকুর ভাসানের রেওয়াজ সেখানে এবার তারা পৌঁছাতে পারেনি। ঠাকুর ভাসানের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয় কিন্তু জলাশয় সংলগ্ন গেট না খোলায় তারা বিসর্জন সম্পন্ন করতে পারেনি। জলাশয় মালিকের তীব্র বাধায় তা সম্ভবপর হয়নি।

জলাশয়ের মালিক শান্তি দে, হাইকোর্টে মামলা ঠুকে পাল্টা অভিযোগ করেন এলাকাবাসীর নামে। তাঁর অভিযোগ, কোনও বৈধ অনুমতি ছাড়াই তার জায়গার ওপর জোর করে এলাকার কয়েকজন ম্যারাপ বেঁধে কালীপুজো করে। পুজোর অনুমতি না দেওয়ার কথা তাদের জানানো হলেও নিয়ম-নীতির কোন তোয়াক্কা না করেই ঢাক-ঢোল বাজিয়ে মা কালীর আরাধনা হয়। প্রতিমা সরানো নামতো নেই-ই, ম্যারাপ খোলার নামগন্ধও নেই দীর্ঘদিন ধরে ।

আসলে জায়গা দখল করার উদ্দেশ্য নিয়েই সম্ভবত এমন পূজোর ফন্দি আঁটা। পুরুলিয়া সদর থানা কে বলেও কোন লাভ হয়নি। আর এসবের নিট ফলে, পাক্কা সাড়ে তিন মাস ম্যারাপ-বন্দী হয়ে পড়ে রয়েছে কালি ঠাকুর।

শুক্রবার মামলাটির শুনানি হয় বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের বেঞ্চে।শান্তি দে'র আইনজীবী সৌগত মিত্রের কথায়, " অবিলম্বে মৃন্ময়ী কালী প্রতিমা সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এরজন্য পুলিশি ব্যবস্থাপনার খরচ মামলাকারীকে বহন করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।" হাইকোর্টের নির্দেশে এবার কি গঙ্গা পাবে কালী মা! নাকি জমিজিরেত-এর গন্ডগোলে ম্যারাপ-বন্দী হয়েই কাটবে ভাগাবাঁধ পাড়ার শ্যামা মা'র বাকি জীবন।

অর্ণব হাজরা

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: February 14, 2020, 10:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर