corona virus btn
corona virus btn
Loading

রবীন্দ্র সঙ্গীত বাজিয়ে শহর পরিষ্কার অভিযান ! সৌজন্যে হাওড়া পুরসভা

রবীন্দ্র সঙ্গীত বাজিয়ে শহর পরিষ্কার অভিযান ! সৌজন্যে হাওড়া পুরসভা

এবার থেকে বাড়ি বাড়ি দেওয়া হবে বজ্র জমানোর পাত্র একেবারে বিনা মূল্যে | রবীন্দ্র সঙ্গীত ব্যবহারে উঠছে ভিন্ন মত | 

  • Share this:

#হাওড়া: এখন থেকে আপনার প্রতিদিন ঘুম ভাঙবে রবীন্দ্র সংগীত শুনে ৷ সৌজন্যে হাওড়া পুরসভার সাফাইকর্মীরা ৷ আর পুরনো বাঁশি নয়, এবার থেকে সাউন্ড বক্সে রবীন্দ্র সঙ্গীত বাজিয়ে আপনার ঘরের দরজায় কড়া নাড়বে পুরকর্মীরা | সংগ্রহ করবে আপনার সারাদিনের জঞ্জাল যা ঘরেই জমিয়েছেন আপনি ৷ এবার থেকে অত্যাধুনিক ব্যাটারি চালিত গাড়িতে হাইড্রোলিক লাগানো গাড়ি করে বাড়ি বাড়ি ময়লা সংগ্রহ করা হবে হাওড়া এলাকায় ৷ সেই ময়লাগুলির ধরন অনুযায়ী সেগুলিকে আলাদা করে পচনশীল ও অপচনশীল পদার্থকে আলাদা করে কমপ্রেস মেশিনের সাহায্যে সেগুলির পরিমাণ কামানো হবে ৷

হাওড়া পুরসভার একটি মাত্রা ডাম্পিং গ্রাউন্ড রয়েছে হাওড়া বেলগাছিয়া অঞ্চলে, সেই ডাম্পিং গ্রাউন্ডের ধারণ ক্ষমতা কমে যাওয়ায় এই ধরণের পদ্ধতি গ্রহণ করা হয়েছে ৷ বাড়িতে সাধারণত দুই থেকে তিন ধরণের ময়লা জমা হয়,পচনশীল,অপচনশীল ও সলিড ৷ সেই কথা মাথায় রেখেই অত্যাধুনিক এই ময়লা সংগ্রহের জন্য ব্যবহৃত হচ্ছে নতুন পদ্ধতিতে তৈরী গাড়ি ৷ গাড়িতে থাকবে চার চারটি বাক্স ৷ কোনটি পচনশীল ময়লার জন্য কোনটি আবার অপচনশীল, প্লাস্টিক জাতীয় আবার কোনোটিতে থাকবে সলিড ময়লা ফেলার জন্য ৷

শুধু গাড়িতেই এই ভাগ নয়, আপনার বাড়িতেও থাকবে পুরসভার দেওয়া পাত্র ৷ একটি নীল রঙের পাত্র যাতে অপচনশীল ময়লা রাখতে হবে আরেকটি পাত্র থাকবে সবুজ রঙের পাত্র যাতে আপনাকে জমাতে হবে পচনশীল পদার্থ ৷ গাড়ি এলেই আপনাকে নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলতে হবে জজ্ঞাল | সঙ্গে থাকবে সকাল সকাল রবীন্দ্র সংগীতের ডালি ৷ হাওড়া শহর জুড়ে ধীরে ধীরে এই পরিষেবা চালু হবে ৷

বৃহস্পতিবার হাওড়া পুরসভার ২২ নাম্বার ওয়ার্ড থেকে শুরু হল পরিষেবা ৷ হাওড়া পুরসভার কমিশনার জানিয়েছে ক্লিন সিটি গ্রিন সিটি প্রকল্পে এই কাজ শুরু করা হয়েছে, পচনশীল ময়লা দিয়ে বিভিন্ন সার তৈরির বিষয়ে ভাবনা চিন্তা চলছে ৷ কীভাবে এই ময়লাগুলিকে পুনরায় কাজে লাগানো যায় সেই বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে ৷ তবে এই রকম একটি প্রকল্পে রবীন্দ্রসংগীতের ব্যবহার নিয়ে ভিন্ন মত পোষণ করেছেন সমাজের বিশিষ্ট মানুষ জনেরা৷

রবীন্দ্রসংগীতের অপব্যবহার করা হচ্ছে বলে মনে করছেন আবার অনেকেই বলছেন সকাল সকাল রবি ঠাকুরে গানে ঘুম ভাঙলে ক্ষতি কি ?

Published by: Akash Misra
First published: February 6, 2020, 10:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर