প্রশাসনিক বৈঠকে অনুপস্থিত কর্তারা, প্রবল ক্ষুব্ধ জগদীপ ধনকড়

শিলিগুড়ির পর উত্তর ২৪ পরগণাতেও একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি ৷ ভেস্তে গেল ধামাখালিতে রাজ্যপালের প্রশাসনিক বৈঠক ৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 22, 2019 02:39 PM IST
প্রশাসনিক বৈঠকে অনুপস্থিত কর্তারা, প্রবল ক্ষুব্ধ জগদীপ ধনকড়
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 22, 2019 02:39 PM IST

#সুন্দরবন: রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত আরও তুঙ্গে ৷ শিলিগুড়ির পর উত্তর ২৪ পরগণাতেও একই দৃশ্যের পুনরাবৃত্তি ৷ ভেস্তে গেল ধামাখালিতে রাজ্যপালের প্রশাসনিক বৈঠক ৷ অনুপস্থিত জনপ্রতিনিধি ও জেলা প্রশাসনের কর্তারা ৷ এর জেরে ভেস্তে গেল রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের প্রশাসনিক বৈঠক ৷ রাজ্য সরকারের উপর ফের প্রবল ক্ষুব্ধ রাজ্যপাল ৷

অভিযোগ, জনপ্রতিনিধিদের খবরই দেয়নি প্রশাসন ৷ বৈঠকের জন্য রাজ্যের অনুমতি আসেনি, এই মর্মে গতকাল জেলাশাসকের চিঠি যায় রাজভবনে ৷ রাজ্যের শীর্ষ আধিকারিকরা এই মুহূর্তে উত্তরবঙ্গে ৷ সেখানে এদিনই রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসনিক বৈঠক ৷

এদিকে বৈঠক ভেস্তে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ রাজ্যপাল ৷ রাজ্য সরকারের উপর চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমি রাজ্য সরকারের অধস্তন নই ৷ রাজ্যপালের নির্দেশ মানছেন না জেলাশাসক ৷’ সংবাদমাধ্যমের সামনে ক্ষোভের সুর রাজ্যপালের গলায় ৷ বলেন, ‘গত ১৭ অক্টোবর জেলাশাসককে প্রশাসনিক বৈঠকের কথা জানিয়েছিলাম। কিন্তু গতকাল জেলাশাসক একটি চিঠি দিয়ে জানান, রাজ্য সরকারের অনুমতি ছাড়া বৈঠক সম্ভব নয়। মুখ্যমন্ত্রীর ২১ থেকে ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত উত্তরবঙ্গে থাকবেন ৷ সেখানেই নাকি রয়েছেন সমস্ত শীর্ষ আধিকারিকরা। মুখ্যমন্ত্রী উত্তরবঙ্গে যেতেই পারেন। কিন্তু সেজন্য সরকার তো ছুটিতে চলে যেতে পারে না! ’

কেন তাঁর বৈঠক নিয়ে সংঘাতের পথে হাটছে রাজ্য সরকার? প্রশ্ন শুনেই তেতে উঠলেন রাজ্যপাল। তাঁর জবাব , যে সব মন্ত্রীরা গরম গরম মন্তব্য করছেন, প্রশ্নটা জিজ্ঞাসা করা হোক তাঁদের। কিংবা তাঁরা যাঁর কাছে দায়বদ্ধ, তাঁকে। অর্থা‍ৎ ধামাখালিতে নাম না করে মুখ্যমন্ত্রীকেই টার্গেট করলেন জগদীপ ধনখড়।

First published: 02:39:07 PM Oct 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर