লক ডাউনঃ ভাত-ডাল জুটবে তো! আশঙ্কায় বাজারে আলু-পেঁয়াজ কেনার হুড়োহুড়ি 

লক ডাউনঃ ভাত-ডাল জুটবে তো! আশঙ্কায় বাজারে আলু-পেঁয়াজ কেনার হুড়োহুড়ি 

চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে আলু-পেঁয়াজ-সবজি।

  • Share this:

#বর্ধমানঃ লক ডাউনের আগে বর্ধমানের সবজি বাজারে হুড়োহুড়ি বাসিন্দাদের। সকাল থেকেই সবজি বাজারে ভিড় করছেন সকলেই। আলু, পেঁয়াজ, আদা, রসুন কেনার হুড়োহুড়ি পড়ে গিয়েছে। অনেকেই বড় থলিতে এক সপ্তাহের বাজার সারছেন। আর ক্রেতাদের হুড়োহুড়ির সুযোগ নিচ্ছেন বিক্রেতারা। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে আলু, পেঁয়াজ থেকে কাঁচা শাক-সবজি। বিভিন্ন বাজারেই কৃত্রিম অভাব তৈরি করে কালোবাজারিরও অভিযোগ উঠেছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, আলু পেঁয়াজের কোনও ঘাটতি নেই। তাই কৃত্রিম অভাব তৈরি করে কালোবাজারির চেষ্টা হলে কড়া পদক্ষেপ নেবে প্রশাসন। এদিন কালোবাজারি রুখতে বাজারে বাজারে ঘুরছে বিশেষ টাস্ক ফোর্স। বাজারে বাজারে অভিযান চালিয়েছে বর্ধমান থানার পুলিশ।

বর্ধমানের স্টেশন বাজার, নীলপুর বাজার, রানিগঞ্জ বাজার, তেঁতুল তলা বাজার, কালনা গেট বা পুলিশ লাইন বাজার সর্বত্রই সকাল থেকে ছিল ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। বেশির ভাগ ক্রেতাই আলু-পেঁয়াজ মজুত করার লক্ষ্যে বাজারে এসেছেন। তাঁরা বলছেন, পাড়ার দোকানে ডিম, সোয়াবিন, আটা, পাউরুটি মিলবে। কিন্তু আলু পেঁয়াজ শেষ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই আগে ভাগেই সেসব মজুত করতে চাইছেন সকলেই।

ক্রেতাদের লাগাম ছাড়া চাহিদা দেখে আলু পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা। দু'দিন আগেও আলুর কেজি প্রতি দাম ছিল ১৪ টাকা। সেই আলুই আজ  ২০ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ২০ টাকা কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা কেজি দামে। অনেকেই দামের পরোয়া না করেই সেসব সামগ্রী কিনে নিচ্ছেন। জেলা প্রশাসন অবশ্য জানিয়েছে, হুড়োহুড়ির কোনও প্রয়োজন নেই। সবজি বাজার সব সময় খোলা থাকবে। তাই বেশি দাম দিয়ে এইসব সামগ্রী না কেনারই পরামর্শ দিচ্ছে প্রশাসন। কালোবাজারি রুখতে টাস্ক ফোর্সকে তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি থানাকেই এলাকার বাজারগুলিতে টহল দিতে বলা হয়েছে। লক ডাউনের সুযোগে কালোবাজারি করার চেষ্টা হলে কড়া পদক্ষেপ নেবে প্রশাসন- মাইকে সে ব্যাপারে প্রচারও চালানো হচ্ছে।

Saradindu Ghosh

First published: March 23, 2020, 2:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर