Home /News /south-bengal /
Shantipur News: কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছে, মেলেনি পণ, স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বার করে দিল সরকারি চাকুরে স্বামী

Shantipur News: কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছে, মেলেনি পণ, স্ত্রীকে বাড়ি থেকে বার করে দিল সরকারি চাকুরে স্বামী

Woman tortured in in laws house for not giving dowry and giving birth to girl child

Woman tortured in in laws house for not giving dowry and giving birth to girl child

Shantipur News: তাঁকে কয়েকবার মেরে ফেলার চেষ্টা করে তার স্বামী এবং শাশুড়ি বলে অভিযোগ করেন ওই গৃহবধূ।

  • Share this:

    #শান্তিপুর: পণের (Dowry) টাকা না দেওয়ায় এবং কন্যা সন্তান (Girl Child) হওয়ায় এক গৃহবধূকে শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার করে বাড়ি থেকে বের করে দিল সরকারি চাকুরিজীবী স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার শান্তিপুর (Shantipur) থানার বাগআঁচড়া বাজার এলাকায়। জানা যায় তিন বছর আগে শান্তিপুর থানার বাগআঁচড়া বাজার এলাকার বাসিন্দা যুবতী মালবিকা ঘোষের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয় ওই এলাকারই যুবক মানস ঘোষের।

    অভিযোগ কয়েক মাস পর থেকে পণের (Dowry) দাবিতে ওই গৃহবধূর ওপর শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচার শুরু করে তার স্বামী এবং শাশুড়ি। একাধিকবার মেরে ফেলার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ গৃহবধূর। এক বছর আগে তার একটি কন্যা সন্তান  (Girl Child) হয়। কেন পুত্রসন্তান হল না এই প্রশ্ন করে অত্যাচারের মাত্রা আরও বেড়ে যায় বলে অভিযোগ। অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে কয়েকবার বাবার বাড়ি চলে যায় ওই গৃহবধূ। কিন্তু বুঝিয়ে-শুনিয়ে আবার স্বামী তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। কন্যা সন্তান হওয়ার পর অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে যায় এবং তাঁকে কয়েকবার মেরে ফেলার চেষ্টা করে তার স্বামী এবং শাশুড়ি বলে অভিযোগ করেন ওই গৃহবধূ।

    আরও পড়ুন - Shantipur News: ‘জ্যাঠা জেঠি’ প্রতিমাকে রীতি মেনে পুজো, শান্তিপুরে পালিত পঞ্চম দোল

    শুক্রবার তাঁকে পুনরায় বেধড়ক মারধর করে এক বছরের কন্যাসন্তানটিকে জোর করে রেখে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয় ওই গৃহবধূকে। প্রশ্ন উঠছে সরকারি চাকরি করার পরেও কিভাবে পণের দাবিতে এবং কন্যা সন্তান হওয়ায় এটি গৃহবধূকে অত্যাচার করতে পারে তার স্বামী।

    অবশেষে শুক্রবার ওই গৃহবধূ এবং তার পরিবারের তরফ থেকে শান্তিপুর  (Shantipur)  থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। গৃহবধূ মালবিকা ঘোষ এবং বাবা অমিত কুমার ঘোষ চাইছেন তারা যাতে ওই কন্যা সন্তানটি নিজেদের হেফাজতে ফিরে পান এবং স্বামী এবং শাশুড়ির যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করে প্রশাসন। যদিও অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ।

    Mainak Debnath

    Published by:Debalina Datta
    First published:

    Tags: Dowry, Girl Child, Shantipur

    পরবর্তী খবর