‘তুমি ইউপিতে আছো, থাকো, বাংলাকে ডিস্টার্ব করতে এসো না’ নাম না করে হুঙ্কার সাধন পান্ডের

‘তুমি ইউপিতে আছো, থাকো, বাংলাকে ডিস্টার্ব করতে এসো না’ নাম না করে হুঙ্কার সাধন পান্ডের
তাঁর দাবি, বাংলার মানুষ চুপচাপ দেখছে। সঠিক সময় এর জবাব তাঁরা দেবেন। শুধু ভোট দেখে উন্নয়ন নয়।তৃণমুল সরকার সারা বছর উন্নয়নের কাজ করে।

তাঁর দাবি, বাংলার মানুষ চুপচাপ দেখছে। সঠিক সময় এর জবাব তাঁরা দেবেন। শুধু ভোট দেখে উন্নয়ন নয়।তৃণমুল সরকার সারা বছর উন্নয়নের কাজ করে।

  • Share this:

    RAJARSHI ROY

    #হাবরা: ‘‘একটা মেয়ের বিরুদ্ধে সারাদেশের শিল্পপতি ও রাজনৈতিক লোক গ্যাং আপ হয়েছে। ওঁরা বাংলাকে দখল করতে আসছে । রোজ কেউ না কেউ আসছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অতি সাধারণ ঘরের মেয়ে। লড়াই করে উঠে এসেছেন। পারিবারিক আভিজাত্য নেই, তাই তাঁকে নিশানা করেছে সবাই, দাবি রাজ্যের স্বনির্ভর মন্ত্রী সাধন পান্ডের। তাঁর দাবি, বাংলার মানুষ চুপচাপ দেখছে। সঠিক সময় এর জবাব তাঁরা দেবেন। শুধু ভোট দেখে উন্নয়ন নয়। তৃণমুল সরকার সারা বছর উন্নয়নের কাজ করে। আজ হাবরায় মা নামে একটি ক্যান্টিন উদ্বোধন করতে এসে এই ভাবেই নিশানায় আনেন বিজেপিকে। মন্ত্রী সাধন পান্ডে এ দিন বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবাইকে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখেন। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরে রাষ্ট্রীয় অ্যাটাক চলছে, সকলে মিলে মমতার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন একজন মহিলার বিরুদ্ধে লড়াই সমীচিন নয়, দাবি তাঁর। সঙ্গে তাঁর সংযোজন  এতে কোনও লাভ হবে না। বাংলার যুবকেরা বাংলার মায়েরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আবার বিজয়ী করে ফিরিয়ে আনবেন।


    হাবরা ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতিতে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর পরিচালিত একটি ক্যান্টিনের উদ্বোধন করেন তিনি এ দিন। মন্ত্রী  সাধন পান্ডে বলেন,  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বাংলার মায়েরা ভাইয়েরা বোনেরা চেনেন এবং সে ক্ষেত্রে মমতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় সকলে মিলে একজন মহিলার বিরুদ্ধে যে ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন সেটা ঠিক নয়। এতে কোনও লাভ হবে না। সেই সঙ্গে আজই রাজ্য প্রথম মা ক্যান্টিনের উদ্বোধন হল হাবরায়। রাজ্যের ক্রেতা সুরক্ষা মন্ত্রী সাধন পান্ডের দাবি, বাজেট ঘোষিত প্রকল্পই তাঁরা আজ প্রথম হাবরায় চালু করলেন। বাজেটের আগেই এই প্রকল্পের কাজ তার দপ্তর হাতে নিয়েছিল বলে দাবি মন্ত্রীর। একইসঙ্গে মন্ত্রীর দাবী আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রেশনে বিনা পয়সায় চাল গম দেওয়া হবে।তার দাবী জুন পর্যন্ত ঘোষণা তো ছিল।তা বেড়ে এ বার সেপ্টেম্বর করা হল। সেই সঙ্গে বর্তমানে ১ কোটি স্বনির্ভর গোষ্ঠী রয়েছে। আরও ১ কোটি স্বনির্ভর গোষ্ঠী তৈরী করা হবে।তাহলে নয় কোটী বাসিন্দার রাজ্যে ৪ কোটি মানুষের হাতে কাজ জুটবে।

    Published by:Simli Raha
    First published:

    লেটেস্ট খবর