দক্ষিণবঙ্গ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুজোর বাজারের ক্রমেই বাড়ছে ভিড়, তারসঙ্গে পাল্লা দিয়ে এই জেলাতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ 

পুজোর বাজারের ক্রমেই বাড়ছে ভিড়, তারসঙ্গে পাল্লা দিয়ে এই জেলাতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ 

এখন শেষ পর্যায়ের পুজোর বাজার চলছে। শপিং মলগুলিতে ভিড় উপচে পড়ছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পুজোর মুখে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনার সংক্রমণ। পূর্ব বর্ধমান জেলাজুড়ে প্রতিদিনই একশোর কাছাকাছি বাসিন্দা করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। বাজারে ভিড়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন জেলা স্বাস্থ্য দফতর। এর পরিণতিতে আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে জেলার সদর শহর বর্ধমান সহ অন্যান্য পৌরশহর ও তার আশপাশ এলাকাতেও আক্রান্তের সংখ্যা উদ্বেগজনক ভাবে বাড়ছে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে যত দিন যাচ্ছে ততই বাসিন্দাদের মধ্যে বাইরে বের হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। এখন শেষ পর্যায়ের পুজোর বাজার চলছে। শপিং মলগুলিতে ভিড় উপচে পড়ছে। বাজারে গা ঘেঁষাঘেঁষি করে চলছে কেনাকাটা। অনেকেই মাস্কে মুখ ঢাকছেন না। বাজারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাও সম্ভব হচ্ছে না। এতে দ্রুত সংক্রমণ এক দেহ থেকে অন্য দেশে ছড়িয়ে পড়ছে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় এ দিন পর্যন্ত ৫৭১৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫০২৬ জন ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।বর্তমানে ৬০৯ জন আক্রান্ত রয়েছেন। তাদের বর্ধমানের করোনা হাসপাতাল, সেফ হোম ও হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা চালানো হচ্ছে। এ দিন পর্যন্ত এই জেলায় ৭৮ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

এই জেলায় গত চব্বিশ ঘন্টায় নতুন করে ৮৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তার আগের দিন অর্থাৎ ১২ অক্টোবর করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ৭৭ জন। ১১ অক্টোবর ৯৭ জন করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন। ১০ অক্টোবর আক্রান্ত হয়েছিলেন ৭৮ জন। ৯ অক্টোবর ৮২ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ মিলেছিল। ৮ অক্টোবর ৮৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। ৭ অক্টোবর আক্রান্ত হয়েছিলেন ৯৪ জন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন,আগের থেকে ধাপে ধাপে পরীক্ষা অনেকটাই কমেছে। বাসিন্দাদের মধ্যেও করোনা পরীক্ষা করানোর প্রবণতা কমছে। পরীক্ষা কম হলেও আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি বিশেষ উদ্বেগের বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Saradindu Ghosh

Published by: Debalina Datta
First published: October 14, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर