corona virus btn
corona virus btn
Loading

রক্ষণাবেক্ষণেই কি গাফিলতি ? বর্ধমান রেল স্টেশনে বিপর্যয়ের দায় কার ? উঠছে প্রশ্ন

রক্ষণাবেক্ষণেই কি গাফিলতি ? বর্ধমান রেল স্টেশনে বিপর্যয়ের দায় কার ? উঠছে প্রশ্ন

সংস্কার হলেও স্টেশনের ওই অংশ ভেঙে পড়ার আশঙ্কা আগেই করেছিলেন যাত্রীরা। স্টেশন কর্তৃপক্ষকে জানালেও ব্যবস্থা হয়নি বলেই অভিযোগ নিত্যযাত্রীদের।

  • Share this:

#বর্ধমান: শনিবার রাতে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে বর্ধমান স্টেশনের একাংশ। ঘটনায় কোনও প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান নেওয়ার সুযোগই পেল না রেল। সোমবার স্টেশনের দুর্ঘটনাগ্রস্ত অংশ পরীক্ষা করেন স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়াররা। তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান তাঁরা পাননি ৷ খালি হাতেই ফেরে রেলের কমিটি ৷

শনিবার রাত আটটা আট নাগাদ ভেঙে পড়ে বর্ধমান স্টেশনের একাংশ। স্টেশন চত্ত্বরে তখন থিকথিকে ভিড়। অধিকাংশ মানুষই সেই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী করেন। তবে রেলের তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি যখন প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষী নিতে যান, তখন একজনও হাজির হলেন না ৷ দু’ঘণ্টা অপেক্ষা করেন কমিটির সদস্যরা ৷ বর্ধমান স্টেশনের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা ৷

কেন একজন প্রত্যক্ষদর্শীও হাজির হলেন না কমিটির কাছে? এক্ষেত্রেও রেলের বিরুদ্ধে গুরুতর গাফিলতির অভিযোগ। সোমবার যে জনশুনানি - সেকথা জানানই ছিল না বলে দাবি প্রত্যক্ষদর্শীদের।

জনশুনানি নিয়ে প্রচারই হয়নি বলে অভিযোগ ৷  খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন দেওয়া ছাড়া জনশুনানি নিয়ে কোনও প্রচারও করেনি রেল। এমনটাই অভিযোগ ৷

সংস্কার হলেও স্টেশনের ওই অংশ ভেঙে পড়ার আশঙ্কা আগেই করেছিলেন যাত্রীরা। স্টেশন কর্তৃপক্ষকে জানালেও ব্যবস্থা হয়নি বলেই অভিযোগ নিত্যযাত্রীদের।

বর্ধমান স্টেশনের ভেঙে যাওয়া অংশ খুঁটিয়ে পরীক্ষা করেছেন রেলের স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়াররা। কী ধরণের নির্মাণকাজ হচ্ছিল, খতিয়ে দেখা হয় ৷ কতটা জায়গা ভেঙেছে তাও পরীক্ষা হয় ৷

First published: January 7, 2020, 8:13 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर