এবার কি সংস্কৃতি মেট্রোতেও সিনেমা বন্ধ হওয়ার পালা !

এবার কি সংস্কৃতি মেট্রোতেও সিনেমা বন্ধ হওয়ার পালা !

বর্ধমান সংস্কৃতি মেট্রোয় সিনেমা প্রদর্শন বন্ধের আশঙ্কায় কর্মীরা ৷

  • Share this:

#বর্ধমান: বর্ধমানের "সংস্কৃতি মেট্রো" প্রেক্ষাগৃহে কী পাকাপাকিভাবে বন্ধ হয়ে যাবে সিনেমা প্রদর্শন! দর্শকের অভাবে সেই আশঙ্কাই করছেন প্রেক্ষাগৃহের কর্মীরাই। দর্শকের অভাবে মাঝেমধ্যেই বন্ধ থাকছে শো। দর্শকের অভাবে দিনের তিনটি শোর একটাও চালু করা যায়নি, এমন নজিরও রয়েছে। এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে সংস্কৃতি মেট্রোয় কতদিন সিনেমা দেখানো যাবে তা নিয়ে সংশয়ে কর্মীরাই।

বর্ধমান শহরের প্রাণকেন্দ্র কার্জন গেটের পাশেই "সংস্কৃতি লোকমঞ্চ"। রাজ্যের নামজাদা প্রেক্ষাগৃহগুলির অন্যতম এই প্রেক্ষাগৃহ। মূলত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, সভার জন্য এই হল তৈরি করা হলেও গোড়া থেকেই এই হলে চলচ্চিত্র প্রদর্শনেরও ব্যবস্থা রয়েছে। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত উন্নত পরিকাঠামোর এই হলে সিনেমা দেখার আগ্রহ ছিল গোড়া থেকেই। কিন্তু ইদানিং হলে গিয়ে সিনেমা দেখার আগ্রহে রাজ্য জুড়ে যে ভাটার টান চলছে তার প্রভাব পড়েছে এই হলেও।

সংস্কৃতি লোকমঞ্চে একসঙ্গে ১,৪০০ জন দর্শক বসতে পারেন। একসময় এই হলে টাইটানিকের মতো ছবি রিলিজ করেছিল। দীর্ঘদিন হাউসফুল হয়েছে এই হল। তবে তারপরই বদলাতে থাকে সময়।কমতে শুরু করে দর্শক। ধারাবাহিকভাবে দর্শক কমতে থাকায় পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে সংস্কৃতি মেট্রো নামে আরও একটি হল তৈরি করা হয়। কম দর্শক থাকলেও যাতে শো চালানো যায় তা নিশ্চিত করতেই সেই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই মেট্রোতেও এখন দর্শকের দেখা মিলছে না।

পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদ পরিচালিত সংস্কৃতি লোকমঞ্চে অ্যানেক্স নামে আরও একটি হল রয়েছে। সেটি মূলত ছোট আকারের সভা, আলোচনার জন্য। সংস্কৃতি লোকমঞ্চে এখন আর সিনেমা চলে না। সেখানে সভা, অনুষ্ঠান হয়। সংস্কৃতি মেট্রো সভার জন্য ভাড়া দেওয়া হলেও সেটি মূলত সিনেমা প্রদর্শনের জন্য। এক কর্মী বলেন, "কয়েক মাস আগে ন্যূনতম দশ জন দর্শক না হলে টিকিট দেওয়া হতো না। এখন চারজন হলেও শো চালানো হচ্ছে। কিন্তু অনেক সময় সেটাও হচ্ছে না। দু একজন আসছেন। শুধুমাত্র তাদের জন্য শো চালানো যাচ্ছে না। অপেক্ষায় থেকে যাঁরা ফিরে যাচ্ছেন তাঁরা আর কোনও দিন আসবেন বলে মনে হয় না।"

Saradindu Ghosh

First published: February 13, 2020, 7:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर