নির্ঘণ্ট ঘোষনার আগেই পুরভোটের দেওয়াল লিখন শুরু বিজেপির !

নির্ঘণ্ট ঘোষনার আগেই পুরভোটের দেওয়াল লিখন শুরু বিজেপির !

পুরসভা নির্বাচনের দিনক্ষন ঠিক করতে এখন ব্যস্ত রাজ্য নির্বাচন দফতর।

  • Share this:

#বর্ধমান: পৌরসভা ভোটের জন্য দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে গেল। তবে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস নয়, সেই দেওয়াল লিখন শুরু করে দিল এখন তৃনমূলের মূল প্রতিপক্ষ বিজেপি। কোথায় ঘটল এমন ঘটনা! পুরসভা নির্বাচনের দিনক্ষন ঠিক করতে এখন ব্যস্ত রাজ্য নির্বাচন দফতর। রমজান মাসের আগে নাকি তার পরে রাজ্য জুড়ে অনুষ্ঠিত হবে পুরভোট তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে। তবে দিনক্ষণের পরোয়া না করে বর্ধমানে পুর ভোটের দেওয়াল লিখন শুরু করে দিল বিজেপি। বিজেপি নেতা, কর্মীরা দলীয় পতাকা হাতে নিয়ে রঙ তুলি দিয়ে পুর ভোটের প্রচার শুরু করে দিলেন। ভারতীয় জনতা পার্টির বর্ধমান সদর জেলা যুব মোর্চার কর্মীরা শহরের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের ২৫০ এবং ২৫১ নম্বর বুথে দেওয়াল লিখন করে। দেওয়ালে দলের প্রতীক পদ্ম ফুল এঁকে ভোট দেওয়ার জন্য বাসিন্দাদের কাছে আবেদন জানানো হয়। দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বামফ্রন্টের লাল দুর্গ হিসেবেই পরিচিত ছিল বর্ধমান। ২০১১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে দেখা যায় ঘাসফুলের দাপট। গত পুরভোটে ৩৫টি ওয়ার্ডের সবকটিই জিতে নেয় তৃনমূল। সেবার তৃণমূল কংগ্রেসের মূল প্রতিপক্ষ ভোটের দিন সাত সকালেই নির্বাচন বয়কট করে। তৃনমূলকে ওয়াক ওভার দিয়ে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে সমালোচিতও হয় সিপিএমের বর্ধমান জেলা কমিটি। লোকসভা নির্বাচনে বর্ধমান দুর্গাপুর আসন তৃনমূলের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে এখন যথেষ্টই উজ্জীবিত বিজেপি।

এবার পুরভোট দখল তৃনমূলের পক্ষে গতবারের মতো সহজ হবে না, দেওয়াল লিখনের মাধ্যমে রাজ্যের শাসক দলকে সেই বার্তাই দিচ্ছে বিজেপি। তাদের যুব মোর্চার নেতা শুভম নিয়োগী বলেন, নির্বাচনের নির্ঘন্ট ঘোষনা হলেই শাসক দল পুলিশের সাহায্য নিয়ে দেওয়াল দখল করবে। তাই আগেভাগে সে কাজ সেড়ে রাখছি আমরা। তবে এবার তৃনমূল জোর করে দেওয়াল মুছতে এলে পালটা জবাব মিলবে বলে হুঁশিয়ারিও দিচ্ছেন তারা। যদিও শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপির দেওয়াল লিখনকে পাত্তা দিতে নারাজ। তৃনমূলের শহরের নেতারা বলছেন, সারা বছর আমাদের নেতারা শহরবাসীর সুখ দুঃখে পাশে রয়েছেন। সব ওয়ার্ডে আমাদের জয় নিশ্চিত। সাম্প্রতিক বিজেপিকে মানুষ চায় না। সেকথা বুঝেই বিজেপি ফাঁকা আওয়াজ দিচ্ছে। বেশিরভাগ ওয়ার্ডে তাদের দেওয়াল লেখারও লোক নেই। দু একটা দেওয়ালে তারা কি লিখলো তা কেউ ঘুরেও দেখবে না।

Saradindu Ghosh

First published: March 6, 2020, 3:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर