• Home
  • »
  • News
  • »
  • south-bengal
  • »
  • BIRBHUM DISTRICT POLICE DRONE SUPERVISION OVER RIVERS TO PREVENT SAND MINING ARC

Sand Mining : বেআইনি বালি তোলা রুখতে বিভিন্ন নদীতে ড্রোন-নজরদারি বীরভূম জেলা পুলিশের

বিশেষ ভাবে নজর দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন নদীসেতু লাগোয়া এলাকাগুলিতে

নদী থেকে নিয়ম অমান্য করে বালি তোলা (sand mining ) হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখতে বীরভূম জেলা পুলিশের অতর্কিতে হানা বিভিন্ন বালিঘাট গুলিতে ।

  • Share this:

সিউড়ি : নদী থেকে নিয়ম অমান্য করে বালি তোলা (sand mining ) হচ্ছে কি না তা খতিয়ে দেখতে বীরভূম জেলা পুলিশের অতর্কিতে হানা বিভিন্ন বালিঘাট গুলিতে । বিশেষ ভাবে নজর দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন নদীসেতু লাগোয়া এলাকাগুলিতে । শুক্রবার সকালে বীরভূমের সিউড়ি থানার অন্তর্গত বিভিন্ন জায়গায় এই অভিযান চলে।

ময়ূরাক্ষী নদীর উপর সিউড়ির  তিলপাড়া জলাধার লাগোয়া এলাকায় এই অভিযান চলে। এ দিন এই অতর্কিত হানার মাধ্যমে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে ড্রোন উড়িয়ে সমস্ত কিছু খতিয়ে দেখা হয়। মূলত বর্ষাকালে নদীগর্ভ থেকে বালি তোলা নিষিদ্ধ রয়েছে । এরই পরিপ্রেক্ষিতে এই তল্লাশি বলে জানানো হয়েছে বীরভূম জেলা পুলিশের তরফ থেকে। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই ঘটনায় কেউ ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বীরভূমের ময়ূরাক্ষী নদীর তিলপাড়া সেতু লাগোয়া এলাকায় বীরভূম জেলা পুলিশের আচমকা অভিযান চলে সরকারি বালিঘাট গুলিতে। সেতু লাগোয়া অঞ্চলের ২ কিমি এলাকায় কোথাও বালি তোলা হচ্ছে কিনা তা দেখতে ড্রোন উড়িয়ে নজরদারি করা হয়। বীরভূম জেলা জুড়ে ময়ূরাক্ষী,  অজয়,  ব্রাহ্মণী-সহ সমস্ত নদীতেই এই নজরদারি চলছে।

সমস্ত নদীর সেতুগুলিতে চলছে সিউড়ি ও মহম্মদবাজার থানার পুলিশের এই নজরদারি। বিশেষ এই টিমে ছিলেন জেলার ডিএসপি ডিএনটি অয়ন সাধু,  সিউড়ি থানার আইসি সন্দীপ চট্টরাজ ও মহম্মদবাজার থানার ওসি মহম্মদ আলি। বীরভূমের জেলা পুলিশসুপার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী জানিয়েছেন ড্রোন দিয়ে নজরদারি বীরভূম জেলার যে কোনও জায়গায় যখন তখন চলবে ৷ পাশাপাশি সিসিটিভি ক্যামেরায় চলবে নজরদারি । জেলা পুলিশসুপার আরও জানিয়েছেন সরকারিভাবে নির্দেশ রয়েছে বর্ষাকালে নদী থেকে বালি তোলা যাবে না ৷ যদি কেউ এই নির্দেশ অমান্য করে তবে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে জেলা পুলিশের তরফে। এই অভিযান হাওয়ায় খুশি নদীগুলির তীরবর্তী গ্রামের বাসিন্দারা।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: