মেয়েদের পোশাক নয়, ছেলেদের নজর বদলানো প্রয়োজন, বলছেন বর্ধমানের 'সুন্দরী'রা

মেয়েদের পোশাক নয়, ছেলেদের নজর বদলানো প্রয়োজন, বলছেন বর্ধমানের 'সুন্দরী'রা
বর্ধমান সুন্দরী প্রতিযোগিতা

বালুরঘাটের মেয়ে পুনম সাহা হস্টেলে থেকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তাঁর উপলব্ধি, মেয়েদের পোশাকে তেমন নোংরা থাকে না। নোংরা থাকে দৃষ্টিতে।

  • Share this:

SARADINDU GHOSH

#বর্ধমান: একের পর এক ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় যখন দেশ উত্তাল, তখন বর্ধমানের সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া উঠতি মডেলদের স্পষ্ট মত, মেয়েদের পোশাক নয়, পুরুষদের নজর বদলানো প্রয়োজন৷ তাঁরা বলছেন, 'মহিলাদের সম্মান দেওয়া উচিত৷ ছোটবেলা থেকে ছেলেদের সেই শিক্ষা দেওয়া প্রয়োজন। তাতে পথে বেরিয়ে টিজিং, শারীরিক নির্যাতন, শ্লীলতাহানি বা ধর্ষণের হাত থেকে মুক্তি পেতে পারেন মহিলারা।'

বর্ধমানে টাউনহল ময়দানে অনুষ্ঠিত হল সেরা সুন্দরী প্রতিযোগিতা। মুক্তবাংলা আয়োজিত সেই প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণকারীদের অধিকাংশই কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া। তাঁরা ইতিমধ্যেই মডেলিংকে কেরিয়ার করে এগিয়ে যেতে চান। সেই লক্ষ্যেই তাঁদের ক্যাট-ওয়াক। সেই উঠতি মডেলরা বলছেন, 'এটা কোরো না সেটা কোরো না- ছোটবেলা থেকেই মেয়েদের সে সব বিধিনিষেধ পাখি পড়ানোর মতো বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এখন বোধহয় ছেলেদেরও মহিলাদের সঙ্গে কী আচরণ করা উচিত, বাড়িতে ছোটবেলা থেকে সেই শিক্ষা দেওয়া উচিত।'

বর্ধমানের সুন্দরী প্রতিযোগিতা বর্ধমানের সুন্দরী প্রতিযোগিতা

বালুরঘাটের মেয়ে পুনম সাহা হস্টেলে থেকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। তাঁর উপলব্ধি, মেয়েদের পোশাকে তেমন নোংরা থাকে না। নোংরা থাকে দৃষ্টিতে। তাঁর প্রশ্ন, স্বল্প পোশাকের মহিলাদের দায়ী করা হলে শিশুকন্যারা ধর্ষিতা হয় কেন? তাই প্রয়োজন নজর বদলানোর। প্রয়োজন যৌন শিক্ষার। নিশা খানের মত, মানসিকতার বদল প্রয়োজন। সে ভাবে পুরুষকে ভাবাতে হবে। মহিলাদের সম্মান দেওয়ার শিক্ষা নিতে হবে।

একই মত মডেল দেবলীনা রায়ের। তার মতে, সমস্যাটা মানুষের দেখার ধরনে। মানসিকতায়। ছেলেদের মতো মেয়েদেরও পোশাক নির্বাচনে সমান স্বাধীনতা পাওয়া উচিত ।

দশ বছর ধরে এই ধরনের ইভেন্ট করে আসছেন প্রসেনজিত সামন্ত। তাঁর মতে, 'সবকিছু দ্রুত বদলে যাচ্ছে। আগে এ ধরনের অনুষ্ঠানে বাবা মা মেয়েদের পাঠাতে চাইতেন না। এখন অভিভাবকরা সঙ্গে করে নিয়ে আসছেন।' তাঁর উপলব্ধি, আজকের প্রজন্মের মহিলারা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভীষণ অ্যাকটিভ। সোসাইটিতে কী ভাবে মিশতে হবে সে ব্যাপারে তাঁরা যথেষ্ট ওয়াকিবহাল। কোথায় কী ড্রেস পরতে হবে সে ব্যাপারে তাঁরা যথেষ্ট সচেতন। তাই মহিলাদের পোশাক নিয়ে প্রশ্ন তোলা আজ পুরুষের বাহানা ছাড়া কিছু নয়।

First published: 05:36:44 PM Dec 09, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर