প্রকৃতিকে বাঁচানো না উন্নয়ন, ভোটে কোন পথে হাঁটবে অযোধ্যা পাহাড়

প্রকৃতিকে বাঁচানো না উন্নয়ন, ভোটে কোন পথে হাঁটবে অযোধ্যা পাহাড়
  • Share this:

#পুরুলিয়া : অযোধ্যা পাহাড় ৷ পুরুলিয়ার জনপ্রিয় এই পর্যটন কেন্দ্র ৷ পুরুলিয়ার এই পাহাড়ের চারপাশের শাল -পিয়ালের জঙ্গল, পাহাড়ের গা বেয়ে নেমে আসা ছোট ছোট ঝোরা ৷ এই পরিবেশ মানুষকে টানে ৷ অযোধ্যা পাহাড়ের এই আদিম প্রকৃতির টানেই মানুষ আসেন এখানে ৷

তবে প্রকৃতির পাশাপাশি বেশ কিছু টুরিস্ট স্পটও রয়েছে এই অঞ্চলে, তারমধ্যে বেশির ভাগই হল বাঁধ বা ড্যাম ৷ বামনি জলধারার ওপর ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে জলাধার ৷ মানুষ ঘোরাঘুরির পাশাপাশি এই সব স্পটে এসে আনন্দ করেন এমনকি নৌকায় ভ্রমণও করেন ৷ আর এই কথা মাথায় রেখেই ফের ড্যাম তৈরির ভাবনা অযোধ্যা পাহাড়ে ৷ ঠুরগা জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে অবশ্য মোটেই শান্তিতে নেই অযোধ্যা পাহাড় ৷

অযোধ্যা পাহাড়ে চারটি বড় জলপ্রপাত রয়েছে ৷ সেগুলি হল বামনী, তুরগা বা ঠুরগা, কাঠালজোলা, বান্দু ৷ পুরুলিয়া পাম্পড স্টোরেজ হওয়ার জন্য বামনীর মূল জলধারা হারিয়ে গেছে ৷ অযোধ্যাবাসী আর তাই চাইছে না এই একই পরিণতি হোক তাদের ঠুরগার ৷ লোকসভা নির্বাচনের আগে এটাই অযোধ্যা পাহাড়ের জনপদগুলির সমস্যা ৷ স্থানীয় স্তরের এই আন্দোলন এখন আদালতেও পৌঁচেছে ৷

5444_984369291630392_3403170771588523458_n

্োস

ছোট্ট জনপদের মানুষগুলি যাদের খাবার ও জলের সমস্যা নিয়ে দিন কাটে , বছরের তিন থেকে চার মাস বাড়ির ছেলেরা কোনও কাজ না পেয়ে বসে থাকে তাদের কাছে অবশ্য এই আন্দোলন আলাদা কোনও গুরুত্ব রাখে না ৷ তারা শুনেছেন আন্দোলনের কথা ৷ তবে কিছু না বলতে পারলেও তারা এটা বলতে পারছেন যে অযোধ্যা পাহাড় যার কোলে তারা ছোট থেকে বড় হয়েছেন তাকে নষ্ট হতে দেবেন না ৷

তবে যারা হোটেল কর্তৃপক্ষ তারা অবশ্য এই জলধার প্রকল্পের জন্য জোর সওয়াল করছেন ৷ তাদের মতে এই প্রকল্প হলে বিদ্যুৎ সমস্যা মিটবে পাশাপাশি পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয় স্পটও বাড়বে , তাতে আরও মানুষ এই অযোধ্যা পাহাড়ে ঘুরতে আসবেন ৷

এই লড়াইয়ে কোন মত জিতবে জানা নেই ৷ কারণ হাইকোর্টের নির্দেশে আপাতত ঠুরগা প্রকল্পে স্থগিতাদেশ দেওয়া আছে ৷ অরণ্য ধ্বংস করে পর্যটন বৃদ্ধি না  প্রকৃতি মা-কে বাঁচিয়ে রেখে বিকাশ কোন পথে যাবে অযোধ্যা পাহাড় জবাব দেবে সময় ৷

আরও দেখুন

First published: May 10, 2019, 7:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर