এবার পুজোর ডেস্টিনেশন হতেই পারে ঘরের কাছে আরশিনগর

এবার পুজোর ডেস্টিনেশন হতেই পারে ঘরের কাছে আরশিনগর
পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড় লাগোয়া পাহাড়ি গ্রাম থেকে এক অন্য সূর্যোদয়। পুজোর ডেস্টিনেশন হতেই পারে ঘরের কাছে আরশিনগর।

পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড় লাগোয়া পাহাড়ি গ্রাম থেকে এক অন্য সূর্যোদয়। পুজোর ডেস্টিনেশন হতেই পারে ঘরের কাছে আরশিনগর।

  • Share this:

    #পুরুলিয়া: সবুজে মাখা , জংলী পুরুলিয়ার উসুলডুংরি। এক রাশ নিস্তব্ধতা নিয়ে অপেক্ষায় নিঝুম পাহাড়। পুরুলিয়ার অযোধ্যা পাহাড় লাগোয়া পাহাড়ি গ্রাম থেকে এক অন্য সূর্যোদয়। পুজোর ডেস্টিনেশন হতেই পারে ঘরের কাছে আরশিনগর।

    পুরুলিয়ার বাগমুন্ডি ব্লকের পাহাড়-ঘেরা ছোট্ট গ্রাম । উসুলডুংরি। অযোধ্যা পাহাড়ের কোল ঘেঁষা গ্রামে এক চিলতে জনপদ। অযোধ্যা পাহাড়ে রাত কাটিয়ে, ভোরে আট কিলোমিটার দূরের উসুলডুংরি থেকে সূর্যোদয়। রয়েছে ওয়াচ টাওয়ার। ভিউ পয়েন্ট।

    উসুলডুংরি মানেই সবুজের আলসেমি। শহুরে কোলাহলের বাইরে এক অন্য জগৎ। শান্ত, নিস্তব্দ, একাকী। কত রকমের পাখি। পাহাড়ের গায়ে ধাক্কা খেতে, খেতে উড়ে যায়। তাদের কলরবে তাল কাটে নীরবতার। বন মোরগ, টিয়াদের রাজ্যে নিঝুম এক রহস্য। ভাগ্য সহায় হলে, পথে দেখা হতে পারে হাতির দলের সঙ্গেও।


    জঙ্গলের মাঝ বরাবর আঁকাবাঁকা পথ। পথের বাঁকে নাম না জানা গ্রাম। অচেনা গৃহস্থালী। উসুলডুংরি জানে মন হারানোর ঠিকানা।

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published: