একদিকে বৃষ্টির জলে মাঠেই নষ্ট হচ্ছে ফসল, অন্যদিকে রোদে মাঠেই শুকিয়ে কাঠ

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করে সমীক্ষার কাজ শুরু করেছেন জেলা কৃষি দফতরের আধিকারিকরা।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2019 11:49 AM IST
একদিকে বৃষ্টির জলে মাঠেই নষ্ট হচ্ছে ফসল, অন্যদিকে রোদে মাঠেই শুকিয়ে কাঠ
photo: Agriculture
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Jul 26, 2019 11:49 AM IST

বর্ষায় ভিজছে উত্তরবঙ্গ। নাগর ও কুলিক নদীর জলে ক্ষতিগ্রস্ত রায়গঞ্জ ব্লকের চারটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা। ধান, পাট চাষে  ব্যাপক ক্ষতি। ক্ষতির পরিমাণ প্রায় আঠারো কোটি টাকা। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার পরিদর্শনে জেলা কৃষি দফতরের আধিকারিকরা। বৃষ্টির অভাবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় মাঠ-ঘাট শুকিয়ে কাঠ। অন্যদিকে বর্ষায় জলভাসি উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন এলাকা। নদীর জল ঢুকে মাঠেই নষ্ট হচ্ছে ফসল।

গত সপ্তাহে পাহাড়ে একটানা বৃষ্টিতে নাগর ও কুলিক নদীর জল বেড়ে যায়।  জল ঢুকে রায়গঞ্জ ব্লকের জগদীশপুর, শীতগ্রাম, বাহিন, ও গৌরী গ্রাম  পঞ্চায়েতের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত। মাঠের ধান মাঠেই নষ্ট হচ্ছে। খেতের পর খেত পাট গাছ কালো হয়ে পচে গিয়েছে। চরম সমস্যায় কৃষকরা।

বিষয়টি কৃষি দফতর ও ব্লক প্রশাসনের নজরে এনেছে স্থানীয় পঞ্চায়েত। প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় আঠারো কোটি টাকা। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করে সমীক্ষার কাজ শুরু করেছেন জেলা কৃষি দফতরের আধিকারিকরা।

গত কয়েক বছরে এবার-ই কৃষকদের ক্ষতির পরিমাণ সবচেয়ে বেশি। ক্ষতিপূরণের দাবি জোরদার হচ্ছে।

First published: 11:49:43 AM Jul 26, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर