নকল ঘিয়ের পর এবার নকল মধু কারখানার হদিশ বর্ধমানে !

নামি কোম্পানির লেভেল লাগিয়ে চড়া দামে বিক্রি করা হচ্ছিল নকল মধু

নামি কোম্পানির লেভেল লাগিয়ে চড়া দামে বিক্রি করা হচ্ছিল নকল মধু

  • Share this:

#বর্ধমান: নকল ঘিয়ের পর এবার নকল মধু কারখানার হদিশ মিলল পূর্ব বর্ধমানের মেমারিতে। এই ঘটনাকে ঘিরে জেলা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। মাসের পর মাস ধরে নামি কোম্পানির লেভেলে সেই নকল মধু বাজারে পাঠানো হচ্ছিল বলে অভিযোগ। শুধু মধু নয়, গোলাপজল, পুদিন হারা-সহ বেশ কিছু নকল সামগ্রী তৈরি করে তা নামি কোম্পানির লেভেল লাগিয়ে চড়া দামে বিক্রি করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ। বুধবার বিকেলে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মেমারি শহরের রেলগেট এলাকায় অভিযান চালায় পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ ও জেলা পুলিশের দুর্নীতি দমন শাখা। সেই অভিযানে নকল কারখানা থেকে প্রচুর সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করা হয়। অভিযানে যাওয়া পুলিশ অফিসাররা জানান, মিষ্টির দোকান থেকে গাদ কিনে এনে তা ফুটিয়ে তার সঙ্গে রঙ ও এসেন্স মিশিয়ে তৈরি করা হচ্ছিল নকল মধু। এরপর তা নামি কোম্পানির কৌটোয় ভরে বাজারে পাঠানো হতো। এই রকম শতাধিক কৌটো নকল মধু বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। নামমাত্র খরচে নকল মধু তৈরি করে তা চড়া দামে বাজারে বিক্রি করা হচ্ছিল। একই ভাবে সেখানে জলের মধ্যে গোলাপের গন্ধ মিশিয়ে তৈরি করা হচ্ছিল নকল গোলাপ জল। একই ভাবে তৈরি হচ্ছিল নকল পুদিনহরাও। তদন্তকারী পুলিশ অফিসাররা জানিয়েছেন, নকল মধু সহ অন্যান্য নকল সামগ্রী তৈরির অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতকে বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হবে। তাকে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে বিস্তারিত জেরা করা হবে। নকল মধু ছাড়াও আর কি কি তৈরি হতো, সেসব কোথায় পাঠানো হতো, এই চক্রের সঙ্গে আর কারা জড়িত তা জানার চেষ্টা চলছে।

Saradindu Ghosh

Published by:Ananya Chakraborty
First published: