corona virus btn
corona virus btn
Loading

শৌচাগারের জন্য কুয়ো কাটতে গিয়ে মৃত তিন, কোথায় হল আর কী কারণ এই হঠাৎ মৃত্যুর!

শৌচাগারের জন্য কুয়ো কাটতে গিয়ে মৃত তিন, কোথায় হল আর কী কারণ এই হঠাৎ মৃত্যুর!

আতঙ্কিত গোটা এলাকাবাসী

  • Share this:

#বর্ধমান: মাটি খুঁড়ে কুয়ো কাটার কাজ চলছিল। বেশ ভালোই চলছিল কাজ। কিন্তু কুয়ো গভীর হতেই ঘটে গেল অঘটন। এক এক করে অসুস্থ হয়ে পড়লেন তিন জন। মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন তাঁরা। কেন মৃত্যু হল তাঁদের? কোথায় ঘটলো এমন ঘটনা!

 কুয়ো কাটতে গেয়ে বিষাক্ত গ্যাসে মৃত্যু হল বাড়ির মালিক সহ তিনজনের।ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের মন্তেশ্বর থানার ধেনুয়া গ্রামে।ফকির শেখের বাড়িতে সেই কুয়ো খোঁড়ার কাজ চলছিল। শৌচাগার তৈরির জন্যই খোঁড়া হচ্ছিল সেই কুয়ো।  সকালে  কুয়ো খুঁড়তে নামেন জাকির শেখ। প্রথম প্রথম কিছুই বোঝা যায়নি। ভালোই কথাবার্তা বলছিলেন তিনি।পরের দিকে ক্রমশ চুপচাপ হয়ে যান। এরপর অসুস্থ হয়ে জ্ঞান হারান। তাঁকে ওই অবস্থায় দেখে তাঁকে উদ্ধার করতে তড়িঘড়ি কুয়োয় নামেন বাড়ির মালিক ফকির শেখ। কিন্তু তিনি জাকির শেখকে উদ্ধার করতে নেমে নিজেই জ্ঞান হারান। এরপর তাঁদের উদ্ধার করতে কুয়োয় নামেন  লিয়াকত শেখ। তারও একই রকম পরিনতি হয়। কুয়োয় অচৈতন্য হয়ে পড়েন তিনিও। ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে ভিড় করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

আরও পড়ুন - #BigNews: করোনা আতঙ্ক জারি, বাতিল ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের বাকি দু'টি ODI

 এর পর স্থানীয় মানুষজন তিন জনকে কুয়ো থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখানের ডাক্তাররা তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করে। তিন তিন জনের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।   মৃত দেহ তিনটি ময়না তদন্তের জন্য কালনা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।ঘটনা স্থলে যায়  মন্তেশ্বর থানার পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান, বিষাক্ত গ্যাস থেকেই মৃত্যু হয়েছে তিন জনের। মাটির তলা থেকে বেরিয়ে এসেছিল সেই গ্যাস। তার ওপর অক্সিজেন ঘাটতি। দুইয়ে মিলিয়ে জ্ঞান হারিয়ে মৃত্যু হয় তাদের। ময়না তদন্তের রিপোর্টে মৃত্যুর কারণের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে। ঘটনায় অবাক এলাকার বাসিন্দারা। তাঁরা বলছেন, কুয়ো কেটেই এলাকায় শৌচাগার তৈরি করা হয়। এই ধরনের ঘটনা এলাকায় প্রথম ঘটল।

Saradindu Ghosh

Published by: Debalina Datta
First published: March 13, 2020, 7:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर