Home /News /south-24-parganas /
West Bengal Tourism|| পর্যটন শিল্পে নজর, জেলা প্রশাসনের উদ‍্যোগে সাজানো হচ্ছে বকখালি-গঙ্গাসাগর

West Bengal Tourism|| পর্যটন শিল্পে নজর, জেলা প্রশাসনের উদ‍্যোগে সাজানো হচ্ছে বকখালি-গঙ্গাসাগর

কাকদ্বীপে জেলাশাসক ও সুন্দরবন উন্নয়নমন্ত্রী

কাকদ্বীপে জেলাশাসক ও সুন্দরবন উন্নয়নমন্ত্রী

Bakkhhali and Gangasagar Tourism: পর্যটন শিল্পের বিকাশে জোর দিল দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন। সেজন‍্য গঙ্গাসাগর ও বকখালিকে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে। আগামীদিনে এই দুটি জায়গা পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবে।

  • Share this:

    #দক্ষিণ ২৪ পরগণা: পর্যটন শিল্পের বিকাশ ঘটাতে উদ‍্যোগী হল দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন। সেজন‍্য দেশের পর্যটন মানচিত্রে এই জেলাকে তুলে ধরতে একগুচ্ছ পদক্ষেপ নিল জেলা প্রশাসন। রাজ্যের অন্যতম পুণ্যভমি তথা দক্ষিণ ২৪ পরগণার গর্ব গঙ্গাসাগর ও সমুদ্রসৈকত বকখালিকে পর্যটকদের আকর্ষণের কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তুলতে নেওয়া হল একাধিক পরিকল্পনা।সমস্ত পরিকল্পনা গুলি বাস্তবায়ন করতে সুন্দরবন-‌বকখালি উন্নয়ন পর্ষদ বা জিবিডিএ-‌র সতেরা তম বার্ষিক সভার আয়োজন করা হয়। এই সভায় মূলত কিভাবে বকখালি ও সাগরকে আরও সুন্দরকরে গড়ে তোলা যায় তা নিয়ে আলোচনা করা হয়। কাকদ্বীপ মহকুমা শাসকের দপ্তরে এই সভার আয়োজন করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা শাসক পি উলগানাথন, সুন্দরবন উন্নয়ন মন্ত্রী বঙ্কিম হাজরা, সুন্দরবন উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান বিধায়ক সমীর জানা, জিবিডিএ-‌র চেয়ারম্যান শ্রীমন্ত মালি সহ পর্ষদের সদস্যরা।

    সভা শেষে বকখালি ও গঙ্গাসাগরকে নতুন রূপে গড়ে তোলার জন‍্য একগুচ্ছ পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেন সুন্দবরবন উন্নয়ন মন্ত্রী বঙ্কিমচন্দ্র হাজরা। তিনি জানান বকখালি সমুদ্র সৈকত এই মুহূর্তে পর্যটকদের আকর্ষণের অন‍্যতম কেন্দ্রবিন্দু। সেজন‍্য বকখালি প্রবেশের আগে বানানো হবে ওয়েলকাম গেট। সুসজ্জিত এই ওয়েলকাম গেট দিয়ে প্রবেশ করবে পর্যটকরা। এই ওয়েলকাম গেট বকখালির সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে। এছাড়াও বকখালিতে আধুনিক ড্রেনেজ সিস্টেম তৈরী করা হবে। যাতে বর্ষার জল দ্রুত বের হয়ে যাবে। এছাড়াও নামখানার ১০ মাইল ও সাগরের রুদ্রনগরে তৈরী করা হবে আধুনিক মার্কেট কমপ্লেক্স। যেখানে বেকার যুবক যুবতীরা বিভিন্ন জিনিসপত্র বিক্রি করে স্বনির্ভর হতে পারবে।

    তিনি আরও জানান কপিলমুনির মন্দিরের সামনে সাগরপাড়ে ভাঙন শুরু হয়েছে। সেই ভাঙন রুখতেও ব‍্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।সাগর মেলার সময় সমস্ত দেশ থেকে কোটি কোটি মানুষ সাগরে আসেন। সেই গঙ্গাসাগরের সৌন্দর্যায়ন বৃদ্ধি এবং আগত পূন‍্যার্থিদের কথা মাথায় রেখে মন্দির চত্বরকে আধুনিক মানের করে তোলা হবে।

    এ নিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগণার জেলাশাসক পি উল্গানাথন জানান অতিরিক্ত ভিড়ের কথা মাথায় রেখে কাকদ্বীপের লট ৮ এর কাছে নতুন বাসস্ট্যান্ড তৈরী করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এছাড়াও তৈরী করা হবে একটি বড়ো সার্কিট হাউস, যেখানে থাকবে কন্ট্রোল রুম সহ এক্সিবিশন হল।দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা প্রশাসন এবং জিবিডিএ এর এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে আগামীদিনে বকখালি ও সাগর আরও উন্নত ও আধুনিক হয়ে উঠবে। পর্যটকদের কাছেও যা হবে বাড়তি পাওনা। দেশের অন‍্যান‍্য রাজ‍্য থেকেও পর্যটকরা এসে সচ্ছন্দে রাত্রিযাপন করতে পারবেন এখানে। এ ছাড়াও মনোরঞ্জনের সমস্ত ব‍বস্থা থাকায় আগামীতে বকখালি ও সাগর পর্যটকদের কাছে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখেনা।

    নবাব মল্লিক

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Tourism Department

    পরবর্তী খবর