Home /News /off-beat /
Salary increment: বিয়ে করলেই কর্মীদের বেতন বাড়ানোর নিয়ম করেছে কোন IT সংস্থা?

Salary increment: বিয়ে করলেই কর্মীদের বেতন বাড়ানোর নিয়ম করেছে কোন IT সংস্থা?

এভাবে নিজেদের কর্মীদের খুশি রাখতে বদ্ধপরিকর এই সংস্থা৷ স্বাভাবিকভাবেই আপ্লুত কর্মীরা

  • Share this:

    #মাদুরাই: বিয়ে করলেই বাড়বে বেতন! এমনকী অবিবাহিতদের জন্য থাকছে পাত্র-পাত্রী খোঁজার ব্যবস্থাও৷ এমন ব্যবস্থা করেছে এক তথ্য প্রযুক্তি সংস্থা৷ এভাবে নিজেদের কর্মীদের খুশি রাখতে বদ্ধপরিকর এই সংস্থা৷ স্বাভাবিকভাবেই আপ্লুত কর্মীরা৷

    মুকামবিকা ইনফোসলিউশন (Mookambika Infosolutions) ৷ মাদুরাই শহরের এই তথ্য প্রযুক্তি সংস্থায় রয়েছেন প্রায় ৭৫০ কর্মী৷ দীর্ঘদিন ধরেই তাদের এই কর্মী সংখ্যা অক্ষুন্ন রেখেছে এই সংস্থা৷ কারণ তাঁদের কাজের পদ্ধতি ও কর্মীদের জন্য বিশেষ সুবিধা৷ বছরে ২ বার ইনক্রিমেন্ট বা বেতন বৃদ্ধি হয় কর্মীদের৷ প্রায় ৬ থেকে ৮ শতাংশ হারে বেতন বাড়ে কর্মীদের৷ তবে সব থেকে আকর্ষনীয় বিষয়টি হল কর্মীদের বিয়েতে বিশেষ উপহার৷ তাও আবার বেতন বাড়ানোর মাধ্যমে৷ ২০০৬ থেকে মুকামবিকা ইনফোসলিশনে শুরু হয়েছে এই নিয়ম৷ যখনই কোনও কর্মী বিয়ে করেন তখন থেকে তাঁরা পান বাড়তি মাইনে৷

    আরও পড়ুন Shigella bacteria: দোকানের সুস্বাদু চিকেন ডিশ খেয়ে কিশোরের মৃত্যু, কতটা মারাত্মক এই ব্যাকটেরিয়া জানানে?

    তবে শুধু বিয়েতে নয়, তামিলনাড়ুর এই সংস্থা ম্যাচ মেকিং বা বিয়ের সম্বন্ধ তৈরিতেও বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে৷

    সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা এমপি সেলভাগণেশ জানাচ্ছেন, কর্মীরা আমায় দাদা-র নজরে দেখেন৷ অনেকেই গ্রাম থেকে এখানে কাজ করতে আসেন৷ তাদের অনেকের বাড়িতে বৃদ্ধ বাবা-মা রয়েছেন যাদের বাস্তব দুনিয়া নিয়ে খুব একটা স্পষ্ট ধারণা নেই৷ তাই ছেলে-মেয়েদের জন্য সঠিক সঙ্গী খুঁজে পেতে অক্ষম৷ আমরা তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছি৷ কারণ আমরা মনে করি এই সংস্থা সকলের বাড়ির সমান৷ এখানে আমরা একে অপরের আত্মীয়র মতো থাকার চেষ্টা করি৷ তাই তাদের জন্য জীবন সঙ্গী খুঁজে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়৷ এরপর বিয়েতে গাড়ি ভাড়া করে সব কর্মী একসঙ্গে গিয়ে আনন্দ করি৷ আমরা যেন এক পরিবারের অঙ্গ৷

    আরও পড়ুন Knowledge News: মানুষের প্রস্রাবেই কি রয়েছে বিশ্ব বাঁচানোর চাবিকাঠি? জানুন বিস্তারিত...

    ৪০ শতাংশ কর্মী এখানে গত পাঁচ বছর ধরে কাজ করছেন৷ যাঁরা পুরনো তাদের আমরা অবহেলা করতে পারি না৷ বলছেন প্রতিষ্ঠাতা এমপি সেলভাগণেশ৷ যাঁরা কাজে আসেন, তাঁরা এতটাই জড়িয়ে পড়েন এই সংস্থার সঙ্গে যে কোনও সমস্যা হলেই এমপি সেলভাগণেশের পরামর্শ নেন৷

    আমরা সময় ও অর্থ দিয়ে এমন বন্ধন তৈরি করেছি৷ যার মধ্যে রয়েছে সততা৷ সবকিছু ব্যবসায়ীক চুক্তির মাধ্যমে হয় না৷ কিছু সম্পর্কের মধ্যে ভালবাসাই আসল কথা, গর্বের সঙ্গে বলছেন মুকামবিকা ইনফোসলিউশন প্রতিষ্ঠাতা৷

    Published by:Pooja Basu
    First published:

    Tags: IT Firm, Salary

    পরবর্তী খবর