উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

চাপরামারিতে বন্য পশু সুরক্ষায় বৈঠক রাজ্য-রেলের

চাপরামারিতে বন্য পশু সুরক্ষায় বৈঠক রাজ্য-রেলের

কোন কোন জায়গা দুর্ঘটনাপ্রবণ, সে ব্যাপারে বিস্তারিত রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে রেলকে

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি: রাজ্যের তরাই এলাকায় বন্য পশুদের সুরক্ষায় বিশেষ বৈঠক করল রাজ্য বন দফতর ও রেল মন্ত্রক। বৈঠক শেষে রাজ্য বন দফতর সূত্রে খবর, আলোচনা ইতিবাচক এবং ফলপ্রসূ হয়েছে। অবিলম্বে বিষয়টি নিয়ে রেল ইতিবাচক পদক্ষেপ করবে বলে কথা দিয়েছে।

উত্তরবঙ্গে রেললাইনে কাটা পড়ে বন্যপশু মৃত্যুর ঘটনা প্রায়ই ঘটে। রেলের ধাক্কায় ওই এলাকায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটে হাতির। এই নিয়ে সম্প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টও। এই নিয়েই এ দিন রাজ্য বন দফতরের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন উত্তর ফ্রন্টিয়ার রেলের পদস্থ কর্তারা। সেখানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর ফ্রন্টিয়ার রেলের জেনারেল ম্যানেজার অনশুল গুপ্তও। বৈঠকে শীর্ষ আদালতের রায় মেনে রেলের কর্তারা অবিলম্বে ইতিবাচক পদক্ষেপ করার ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েছেন। খুব শীঘ্রই রেল কী পদক্ষেপ করেছে, তা নিয়ে প্রয়োজনীয় রিপোর্টও দেবে বলে বৈঠকে কথা দিয়েছেন রেল-কর্তারা। বন দফতর সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই রেলকে কোন কোন জায়গা দুর্ঘটনাপ্রবণ, সে ব্যাপারে বিস্তারিত রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। রেল ঘোষণা করেছে, দুর্ঘটনা আটকাতে ওই এলাকাগুলিতে সেন্সর ব্যবহার করা যায় কিনা, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

রাজ্য বন দফতরের এক কর্তা বলেন, "রেল কথা দিয়েছে, অবিলম্বে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে তাতে কী ফলাফল হচ্ছে, সে সম্পর্কে রিপোর্ট দেবে। ওই রিপোর্ট পেলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ করব।" শীর্ষ আদালতের রায় মেনে রেলের কর্তারা অবিলম্বে ইতিবাচক পদক্ষেপ করার ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েছেন। খুব শীঘ্রই রেল কী পদক্ষেপ করেছে, তা নিয়ে প্রয়োজনীয় রিপোর্টও দেবে বলে বৈঠকে কথা দিয়েছেন রেল-কর্তারা। বন দফতর সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই রেলকে কোন কোন জায়গা দুর্ঘটনাপ্রবণ, সে ব্যাপারে বিস্তারিত রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। রেল ঘোষণা করেছে, দুর্ঘটনা আটকাতে ওই এলাকাগুলিতে সেন্সর ব্যবহার করা যায় কিনা, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই নিয়েই এ দিন রাজ্য বন দফতরের পদস্থ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন উত্তর ফ্রন্টিয়ার রেলের পদস্থ কর্তারা।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: January 5, 2021, 10:23 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर