বহিরাগতদের প্রবেশ আটকাতে চোলাই মদের দোকান ভেঙে দিলেন গ্রামের মহিলারা !

photo source collected

গ্রামবাসীরা করোনা আতঙ্কের মধ্যে কিছুতেই মদ বিক্রি করতে দেবে না বলে জানিয়েছে।

  • Share this:

    #কালিয়াগঞ্জ: সমস্যায় পড়েন মদ্যপায়ীরা। যদিও তিন দফার লকডাউনে বেশ কিছু জায়গায় মদের দোকান খোলা হয়। কিন্তু সেখানে মদের লম্বা লাইন ও চড়া দাম। এই অবস্থায় গ্রামে গঞ্জে চোলাই মদের চাহিদা বাড়ে। কালিয়াগঞ্জ থানার পূর্ব ভান্ডার গ্রামের সুমি মুর্মু চোলাই মদ বেচে সংসার চালান। স্বামী মারা গিয়েছেন। সন্তানদের খাবার জোগাড় করতেই চোলাই মদ বেচতে হয় তাঁকে। সেই চোলাই মদের দোকান ভেঙে দিল গ্রামের মহিলারা।

    বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসে থাবায় কাবু মানুষ। এই ভাইরাসকে আটকাতে সতর্কতা মানা ছাড়া উপায় নেই। ঘরে নিজেদের বন্দি করে রেখে, সোশ্যাল জমায়েত না করে করা হচ্ছে মোকাবিলা। কিন্তু গ্রামের ভিতরে চোলাই মদের দোকান খোলায়, অন্য গ্রাম থেকে লোক আসতে শুরু করেছে। মদের জন্য দূর দূর থেকে লোক এসে ভিড় জমাচ্ছে। এতে গ্রামের মানুষের জীবন অনিশ্চয়তার মধ্যে চলে যাচ্ছে। এরপর গ্রামের মহিলারা সুমি মুর্মুর কাছে যায়। দোকান বন্ধ করার দাবি জানায়। মাথা গরম করে সুমি মুর্মু গ্রামবাসীদের ওপর হামলা চালায়। ওই মহিলা একাই গ্রামের মহিলাদের মারধোর শুরু করে। কাপড় টেনে ছিঁড়ে দেয়। এরপর মাথা গরম করে গ্রামের মহিলারাই চোলাই মদের দোকান ভেঙে দেয়। সব মদ নষ্ট করে দেয়। চোলাই বিক্রেতা সুমি মুর্মু বলে, সংসার চালাতে হলে তাঁকে মদ বেচতেই হবে। বাইরের লোকের কাছে সে মদ বেচে না বলেও জানিয়েছে। তবে গ্রামবাসীরা করোনা আতঙ্কের মধ্যে কিছুতেই মদ বিক্রি করতে দেবে না বলে জানিয়েছে। এর পর তারা প্রশাসনের কাছে যাবেন বলেও জানিয়েছেন।

    Published by:Piya Banerjee
    First published: