উত্তরবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নিজের শহরে ফিরলেন ক্রীড়াগুরু অমিত দাম, তাঁকে ঘিরে চলল উন্মাদনা

নিজের শহরে ফিরলেন ক্রীড়াগুরু অমিত দাম, তাঁকে ঘিরে চলল উন্মাদনা

রাজ্য সরকারের ক্রীড়াগুরু সম্মানে সম্মানিত শিলিগুড়ির টেবল টেনিস প্রশিক্ষক অমিত দাম। তাঁর তালিমে বহু জাতীয় সেরা পেয়েছে শহর।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: টেবল টেনিসের শহর শিলিগুড়ি। বহু জাতীয় চ্যাম্পিয়ন উপহার দিয়েছে এই শহর। উপহারের তালিকায় কি নেই? এই শহর দিয়েছে টিটি'র অলিম্পিয়ান, পদ্মশ্রীও। এবারে সেই তালিকার মুকুটে নয়া পালক ক্রীড়াগুরু।

রাজ্য সরকারের ক্রীড়াগুরু সম্মানে সম্মানিত শিলিগুড়ির টেবল টেনিস প্রশিক্ষক অমিত দাম। তাঁর তালিমে বহু জাতীয় সেরা পেয়েছে শহর। সেই সত্তরের দশকের শেষে টিটি'র সঙ্গে অমিত দামের জুড়ে যাওয়া। শিলিগুড়ির বাঘাযতীন অ্যাথলেটিক্স ক্লাবের নিয়মিত ভলিবল এবং ক্রিকেট খেলতেন অমিত দাম। তারপর টেবল টেনিস। সেই শুরু। আশির দশকে শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্কে বসে টিটি'র বড় আসর। সেই থেকেই গোটা শহর টেবল টেনিসমুখী।

শিলিগুড়িতে টেবল টেনিস অ্যাকাডেমি গড়ে তোলেন এফ সি আইয়ের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী অমিত দাম। রবীন্দ্র নগরে এখনও দাপিয়ে চলছে তাঁর অ্যাকাডেমি। বয়সকে পেছনে ঠেলে দিয়ে দু'বেলা নিয়মিত প্রশিক্ষন দিয়ে চলেছেন। বহু জাতীয় সেরা উঠে এসছেন তাঁর প্রশিক্ষনে। শুভজিৎ সাহা, অঙ্কিতা দাস, নন্দিতা দাস, কস্তুরী চক্রবর্তী, সৌম্যজিৎ ঘোষের মতো জাতীয় সেরারা অমিত দামেরই তালিমে বেড়ে ওঠা। সৌম্যজিৎ, অঙ্কিতার পর সাম্প্রতিক অতীতে নতুন কোনো মুখ উঠে আসেনি। তাই নিজের লক্ষ্যে অবিচল অমিত দাম। আরো জাতীয় সেরা উপহার দেওয়াই তাঁর লক্ষ্য। ক্রীড়াগুরু সম্মান পাওয়ার পরও তাঁর লক্ষ্য টেবল টেনিসের শহর শিলিগুড়ি থেকে জাতীয় সেরা উপহার দেওয়া। এক জন বা দু'জন নয়, ২৩ জন জাতীয় সেরা উপহার দিয়েছেন তিনি। এখনও স্বপ্ন দেখেন শিলিগুড়িকে নিয়ে। ক্রীড়াগুরু আজ ফিরেছেন নিজের শহরে। আর তাঁকে ঘিরে উন্মাদনা হবে না! এ আবার হয় না কি!

এদিন ক্রীড়াগুরু শহরে ফিরতেই চলল সংবর্ধনার পালা। টিটি অ্যাকাডেমির উদ্যোগে বরণ উৎসব। হুডখোলা জিপে বাঘাযতীন পার্ক থেকে শহর ঘুরিয়ে শেষ হল টিটি আকাদেমীতে। উত্তরবঙ্গ স্পোর্টস বোর্ডের নান্টু পাল জানান, দীর্ঘদিন বঞ্চিত ছিলেন। এই সম্মান শহরের টেবল টেনিসে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে।

Partha Pratim Sarkar

Published by: Elina Datta
First published: March 15, 2020, 6:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर