corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমফানের জেরে সকাল থেকেই ঝড়- বৃষ্টির দাপট উত্তরেও

আমফানের জেরে সকাল থেকেই ঝড়- বৃষ্টির দাপট উত্তরেও

নিম্নমুখী পারদ। কনকনে ঠাণ্ডা। একে লকডাউন। তারওপর আমফানের জেরে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় ঘরেই বন্দি শৈলরাণীর বাসিন্দারা।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: আমফানের প্রভাব উত্তরবঙ্গেও। পাহাড় থেকে সমতল। সর্বত্রই শুরু হয়েছে বৃষ্টি। কোথায় রোদ ঝলমলে আকাশ? সকাল থেকেই শৈলশহরের মুখ ঢেকেছে কালো মেঘে। গতকালও যেখানে দেখা গিয়েছিল শ্বেতশুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘা। এদিন উধাও ঘুমন্ত বুদ্ধ। পাহাড়ের বুকে চলছে মেঘের ভেলা। দার্জিলিংজুড়ে চলে বৃষ্টি। তার জেরে তাপমাত্রাও এক ধাক্কায় অনেকটাই নেমেছে।

নিম্নমুখী পারদ। কনকনে ঠাণ্ডা। একে লকডাউন। তারওপর আমফানের জেরে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় ঘরেই বন্দি শৈলরাণীর বাসিন্দারা। একই ছবি কার্শিয়ংয়েও। সাদা অর্কিডের দেশও আজ কালো মেঘে ঢাকা পড়েছে। চারপাশে শুধুই বৃষ্টি। আবার ভর দুপুরেও চলে মেঘের খেলা। দুপুরেই পাহাড়ে নেমে আসে আঁধার। মিরিকেও সকাল থেকে শুরু হয়েছে বৃষ্টি। কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে মিরিকে। দিনভর চলে মাইকিং।

মিরিক পুরসভার চেয়ারম্যান এল বি রাই জানান, সরকারি নির্দেশিকা মেনেই মিরিকবাসীকে সচেতন থাকতে বলা হয়েছে। তাই মাইকিং করা হচ্ছে। সকলকেই ঘরে থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কালিম্পংয়েও ঝোড়ো হাওয়া। সঙ্গে বৃষ্টি। দুইয়ের জেরে কালিম্পংয়েও তাপমাত্রা নিম্নমুখী। গরম চায়ের কাপে উষ্ণতার খোঁজে পাহাড়বাসী।

জিটিএ'র পক্ষ থেকেও পাহাড়বাসী সতর্ক থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাহাড়ের পাশাপাশি সমতলেও আমফানের প্রভাব পড়েছে। সকাল থেকেই শিলিগুড়ি ও সংলগ্ন এলাকায় আকাশের মুখ ভার। রোদের দেখা নেই। কখোনো হালকা, আবার কখোনো মাঝারি বৃষ্টি চলে। সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া। ফুলবাড়ি, ফাঁসিদেওয়ার দিকেও ঝড়ের তাণ্ডব দেখা যায়।

শহরজুড়েই সতর্কতা জারি করেছে পুরসভা। খোলা হয়েছে কন্ট্রোল রুম। ২৪ ঘন্টাই খোলা থাকবে কন্ট্রোল রুম। জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্তদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। ঝড়ে কোথাও গাছ পড়লে পুর কর্মীরা দ্রুত পৌঁছে যাবে সেখানে। তৎপর পুরসভা।

শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্য জানান, সবরকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তৈরী থাকছে পুরসভার কর্মীরা। আর এই ঝড়, বৃষ্টির দাপটে সকাল থেকেই শুনশান পাহাড় থেকে সমতল। রাস্তাঘাট ফাঁকা। খাঁ খাঁ করছে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: May 20, 2020, 7:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर