corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে নিজেদের এনক্লোজারে বন্দী শচীন, সৌরভ! করোনা যুদ্ধে কড়া নজরদারি

লকডাউনে নিজেদের এনক্লোজারে বন্দী শচীন, সৌরভ! করোনা যুদ্ধে কড়া নজরদারি

২১ দিনের লকডাউনে এরাও লকড

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ভালো আছে শচীন! সুস্থ আছে সৌরভও! ভাবছেন কাদের কথা বলছি? হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন। বেঙ্গল সাফারি পার্কের দুই লেপার্ডের কথা বলছি। ওদেরই পোশাকি নাম শচীন ও সৌরভ! ভালো আছে আরো দুই লেপার্ডও। টানা ২১ দিনের লকডাউনেও সুস্থ ও সবল আছে বেভানও! বেঙ্গল সাফারি পার্কের রয়েল বেঙ্গল টাইগার।

করোনা মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। আজ প্রধানমন্ত্রী লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে ৩ মে পর্যন্ত ঘোষণা করেছেন।  কেমন আছে আর এক রয়েল বেঙ্গল টাইগার শীলা? শীলার দুই শাবক রিকা আর ডিকাই বা কেমন আছে? খোঁজ নিতে আজ সাফারি পার্কে যান রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। বিশদে খোঁজ নেন অন্য জন্তুদের শারিরীক অবস্থার।

খাওয়া দাওয়া ঠিকঠাক পাচ্ছে তো লক্ষী ও ঊর্মিলা? মানে সাফারি পার্কের দুই কুনকি হাতির কথা বলছি। ভালো আছে কুমির থেকে ভাল্লুকও! রয়েছে ৪০০টি হরিণ। লকডাউনে ভেঙে পড়েনি জন্তুদের শারিরীক অবস্থা। সাফারি পার্কের ডিরেক্টর সহ অন্য অন্য বন কর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন। তখনও লকডাউন হয়নি। তার আগেই করোনা সতর্কতায় বন্ধ করা হয় সাফারি পার্ক। পর্যটকদের দেখা নেই। শুনশান সাফারি পার্ক চত্বর। এখন জঙ্গলেই রাজ করছে বন্য জন্তুরা। নিজেদের এনক্লোজারেই বন্দী ওরা। এনক্লোজারের বাইরে "না"। তবে ওদের দেখভালে পশু চিকিৎসক সহ বন কর্মীরা রয়েছেন সাফারি পার্কে।

তাই প্রতিনিয়ত স্যানিটাইজড করা হচ্ছে গোটা সাফারি পার্ক। প্রতিদিনই সাফারি পার্কের আবাসিক জন্তুদের দু'বেলা খাবার তুলে দেওয়া হচ্ছে। করোনা সতর্কতায় মেনু থেকে চিকেন বাইরে রাখা হয়েছে। কর্তব্যরত বন কর্মীদের জন্য হ্যাণ্ড গ্লাভস থেকে মাস্ক দেওয়া হয়েছে। এদিন সাফারি পার্ক পরিদর্শনের পর একথা জানান পর্যটনমন্ত্রী। আজ বাংলা নববর্ষের দিনে যেখানে পর্যটকদের।ভিড় উপচে পড়তো, আজ সেখানে শুধুই নিস্তব্ধতা। কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে নাম না জানা পাখির কলতান। রয়েল বেঙ্গল টাইগারের হুঙ্কার!

Partha Sarkar

Published by: Debalina Datta
First published: April 14, 2020, 5:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर