Home /News /north-bengal /
আন্তঃরাজ্য-আন্তর্জাতিক সীমান্তে বিশেষ নজর, ৪ জেলার প্রশাসন-রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠকে বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক

আন্তঃরাজ্য-আন্তর্জাতিক সীমান্তে বিশেষ নজর, ৪ জেলার প্রশাসন-রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠকে বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক

পশ্চিমবঙ্গের ভোটে সীমান্ত পেরিয়ে যাতে কোনওরকম অসামাজিক কার্যকলাপ না হয়, কোনও সমাজবিরোধী বা দুষ্কৃতীরা এ রাজ্যে ঢুকে ভোটে অন্তর্ঘাত করতে না পারে তার জন্য বাড়তি গুরুত্ব দেবে কমিশন।

  • Last Updated :
  • Share this:

#মালদহঃ এ বারের নির্বাচনে আন্তঃরাজ্য এবং আন্তর্জাতিক সীমানায় বিশেষ নজর কমিশনের। পশ্চিমবঙ্গের ভোটে সীমান্ত পেরিয়ে যাতে কোনওরকম অসামাজিক কার্যকলাপ না হয়, কোনও সমাজবিরোধী বা দুষ্কৃতীরা এ রাজ্যে ঢুকে ভোটে অন্তর্ঘাত করতে না পারে তার জন্য বাড়তি গুরুত্ব দেবে কমিশন। ভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাশাপাশি রাজ্য পুলিশও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় থাকবে।

শনিবার মালদহে এসে উত্তর  ও  দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদহ এবং মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ, প্রশাসন এবং রাজনৈতিক দলগুলির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর এ কথা জানান কমিশন নিযুক্ত রাজ্যের বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক অনিল কুমার শর্মা। মালদহ সফরে বিএসএফ এবং কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনীর পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গেও আলাদা করে বৈঠক করেন বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক। বৈঠক শেষে সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, "দক্ষিণবঙ্গের উত্তরের এই অংশে ভোট সুষ্ঠু করতে বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ অঞ্চলে বিহার, ঝাড়খণ্ডের মত আন্তঃরাজ্য সীমান্তের পাশাপাশি বাংলাদেশের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সীমান্ত রয়েছে। সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে যাতে কেউ ভোট প্রক্রিয়ায় অন্তর্ঘাত করতে না পারে তার জন্য বাড়তি নজর থাকবে।"

রাজ্যের চার জেলার নির্বাচনী প্রস্তুতি খতিয়ে দেখার পর বিশেষ পর্যবেক্ষক আরও বলেন, "রাজ্যের এই অঞ্চলের পরিস্থিতি খুব খারাপ নয়। আধিকারিকরা ভাল কাজ করছেন। ধাপে ধাপে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে। ষষ্ঠ থেকে অষ্টম দফায় এই চার জেলায় নির্বাচন রয়েছে। এখনও যথেষ্ট সময় রয়েছে। সুষ্ঠু এবং অবাধ নির্বাচন নিশ্চিত করা যাবে। সাধারণ মানুষও ভয়মুক্ত পরিবেশে নিজেদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। রাজ্য পুলিশ বুথে থাকবে কিনা সেই প্রসঙ্গে অবশ্য কোনও মন্তব্য করতে চাননি তিনি।

এ দিন সকালে বিশেষ হেলিকপ্টারে মালদহে এসে পৌঁছন বিশেষ পর্যবেক্ষক। মালদহের নারায়নপুর এলাকায় একটি বেসরকারি হোটেলে এক এক করে চার জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর দ্বিতীয় দফায় চার জেলার জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারদের নিয়ে বৈঠক হয়। শেষ পর্যায়ে বিএসএফ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে আলাদা করে বৈঠক করেন। এরপর বিকেলে হেলিকপ্টারে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা হন।

Sebak DebSarma

Published by:Shubhagata Dey
First published:

Tags: Malda, Special police Observer