• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • প্রচার বন্ধ, গানে তো মানা নেই! ৭২ ঘন্টা আগে অন্য মুডে শিলিগুড়ির অশোক-গৌতম

প্রচার বন্ধ, গানে তো মানা নেই! ৭২ ঘন্টা আগে অন্য মুডে শিলিগুড়ির অশোক-গৌতম

অন্য মেজাজে অশোক ভট্টাচার্য।

অন্য মেজাজে অশোক ভট্টাচার্য।

দিনভর অন্য ভাবেই ব্যস্ত থাকলেন উত্তরের দুই হেভিওয়েট অশোক ভট্টাচার্য ও গৌতম দেব।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: পঞ্চম দফা ভোটের প্রচার শেষ ৭২ ঘন্টা আগেই। আর তাতেই নববর্ষের দিনে যে প্রচার পরিকল্পনা ছিল তা বাতিল করতে হয়েছে প্রার্থীদের। উত্তরের দুই হেভিওয়েট প্রার্থী অবশ্য ভোট আবহে অবসর কাটালেন। একজন গাইলেন গান, অন্য জন ব্যস্ত থাকলেন পার্টি অফিসে ফোনে ফোনে শুভেচ্ছায়। দিনভর এভাবেই ব্যস্ত থাকলেন উত্তরের দুই হেভিওয়েট অশোক ভট্টাচার্য ও গৌতম দেব।

গৌতম দেব, ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী। মন্ত্রী গৌতম দেব অবশ্য ব্যস্ত থাকলেন সকাল থেকে নববর্ষের অনুষ্ঠানে। শিলিগুড়িতে নিজের পাড়া বাঘাযতীন পার্কে চলছিল নববর্ষের অনুষ্ঠান। আর সেখানেই হাজির তিনি। গত কয়েকদিন ধরেই রাজনৈতিক কচকচিতে ব্যস্ত ছিলেন তিনি। একাধিক সভা, মিছিল সব জায়গায় প্রচার চালিয়েছেন তিনি। এদিন অবশ্য তার গলায় শোনা গেল, 'তুমি কেমন করে গান কর হে গুণী'।

গৌতম দেবের অবশ্য গানের ক্যাসেট আছে। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সাথে তার সেই রেকর্ড অবশ্য এদিন শোনা যায়নি। তবে গান গেয়ে পাড়ার মানুষের হাততালি কুড়িয়েছেন তিনি। তবে গান গেয়েই ফিরে যাননি। সকাল থেকেই বসে থাকলেন পাড়ার মাঠে৷ নিজের খাস তালুকে। রবীন্দ্রসঙ্গীত, রবীন্দ্র নৃত্য সবই হল। গৌতমবাবুর অবশ্য বক্তব্য, "আমার খুব একটা অসুবিধা হচ্ছে না প্রচার না করতে পারার জন্যে। তবে আচমকা এই ধরনের সিদ্ধান্ত হলে অসুবিধাই হয়। কারণ প্রচারের শেষ দিন ধরে নিয়ে আমাদের একটা পরিকল্পনা থাকে। আর নববর্ষ মানে তো একটা জনসংযোগের অন্যতম দিন।"

এদিন বাঘাযতীন পার্কে অবশ্য দেদার মিষ্টিমুখের আয়োজন ছিল।অনুষ্ঠানে হাজির না থাকলেও নববর্ষের সকাল থেকে ফোনে ফোনে শুভেচ্ছায় ব্যস্ত থাকলেন শিলিগুড়ির সংযুক্ত মোর্চা প্রার্থী তথা বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। সকাল থেকেই দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন বাড়িতে। তারপর রওনা হয়েছেন শিলিগুড়ি পার্টি অফিসে।

এদিন অবশ্য সকালে ঘুম থেকে উঠেছেন দেরিতে। অশোক বাবুর কথায়, "গত আড়াই মাস ধরে প্রচার করছি। একটু তো ক্লান্ত হয়ে গেছি। তবে পয়লা বৈশাখ প্রচারের আগে থেকে অনেক পরিকল্পনা করা ছিল। সেটা নষ্ট হয়ে গেল। কিন্তু নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত ফলে কিছু বলতেও পারব না।'' তবে অশোকবাবুর খোঁচা, বিজেপি যেভাবে সংস্কৃতি নষ্ট করছে তাতে পয়লা বৈশাখ নিয়ে তাদের আবেগ না থাকলেও আমাদের অবশ্যই আছে।।

Published by:Arka Deb
First published: