নির্বাচনের আগে প্রচুর বোমা উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য়, কারা মজুত করছিল? তদন্তে পুলিশ

নির্বাচনের আগে প্রচুর বোমা উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য়, কারা মজুত করছিল? তদন্তে পুলিশ
প্রতীকী ছবি

বোম উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বোমা উদ্ধারকে ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপাউতর।

  • Share this:

#ইটাহার: ইটাহার থানার সদর পাইকপাড়া শ্মশানের বিশ্রামাগারের পিছনে কুড়িটি বোমা উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য়৷ গ্রামবাসীরা বোমগুলো দেখতে পেয়ে ইটাহার থানার পুলিশকে খবর দেয়। ইটাহার থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। ওই এলাকাটি পুলিশ ঘিরে রাখে পুলিশ। মালদা থেকে বোম স্কোয়াডকে খবর দেওয়া হয়। বিধানসভা ভোটের আগে বিপুল পরিমাণ বোম উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ইটাহার থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মত বৃহস্পতিবার সকালে এই পথ দিয়ে গ্রামবাসীরা যাতায়াত করছিলেন। শ্মশানের বিশ্রামাগারের পিছনে দুটি ব্যাগে রাখা বোম দেখতে পান তাঁরা । বোমা দেখিয়েই তাঁরা ইটাহার থানার পুলিশকে খবর দেন। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই অসংখ্য মানুষ সেখানে ভিড় জমান। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। সাধারণ মানুষ যাতে সেখানে পৌঁছাতে না পারেন তার জন্য এলাকাটি ঘিরে রাখা হয়েছে। বোম উদ্ধারের জন্য  মালদা থেকে বোম স্কোয়াডকে খবর দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা দুলাল চন্দ্র দাস জানান, বোম উদ্ধারে খবর পেয়েই তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছন। তিনটি ব্যাগে বোমগুলো রাখা হয়েছে। সংখ্যায় কতগুলো হবে তা তার জানা নেই। বিধানসভা ভোটের আগে বোমা  মজুত করা হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।


কয়েকদিন আগেও ইটাহার থানার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে বেশ কয়েকটি বোমা উদ্ধার হয়েছে। পর পর বোমা উদ্ধারে গ্রামবাসীদের মধ্যে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। ইটাহার থানার পুলিশ জানিয়েছে এই পথ দিয়ে সকালে চলাফেরার করার সময় গ্রামবাসীরা প্রথম বোমগুলো দেখতে পান। কারা এই বোমগুলো নিয়ে এসেছে তা জানতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

বোম উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ মামলা দায়ের করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বোমা উদ্ধারকে ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপাউতর। বিধানসভা নির্বাচনের আগে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করতেই বোমা মজুত রাখা হচ্ছে, অভিযোগ বিজেপির৷  তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপির অভিযোগকে গুরুত্ব দেয়নি। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি সমাজবিরোধীরা এই বোমা দিয়ে এলাকায় কোন অসমাজিক কাজ করার পরিকল্পনা নিয়েছিল।পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

Published by:Pooja Basu
First published:

লেটেস্ট খবর