corona virus btn
corona virus btn
Loading

ঠাকুমার পরানো শাড়ি পরে প্রথমবার সরস্বতী পুজোর অঞ্জলি দিতে গিয়ে মর্মান্তিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু ছোট্ট মেয়ের

ঠাকুমার পরানো শাড়ি পরে প্রথমবার সরস্বতী পুজোর অঞ্জলি দিতে গিয়ে মর্মান্তিক অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু ছোট্ট মেয়ের

প্রদীপ থেকে অগ্নিকাণ্ড, সবাইকে কাঁদিয়ে চলল মিষ্টি মেয়ে

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: সরস্বতী পুজোর আলোকে ম্লান করে চলে গেল খুদে ৷ বাঙালির কাছে সরস্বতী পুজো ভ্যালেন্টাইন্স ডে হলেও ছোটদের কাচএ সরস্বতী পুজো হল সব থেকে আনন্দের দিন ৷ সাতসকালে উঠে তাড়াতাড়ি কাঁচা হলুদ গায়ে মেখে স্নান করা ৷ স্কুলে পড়লে ভাল, না পড়লেও সবস্বতী পুজোকে কেন্দ্র করে ছোট থেকে বড় সবারই উন্মাদনা থাকে চরমে ৷ এমনই এক গল্প সামনে এসেছে জানা গিয়েছে লাল পাড় হলুদ শাড়ির বায়না ধরেছিল ছোট্ট মেয়ে ৷ সেই লাল পাড় শাড়িটিই জড়িয়ে ধরে মঙ্গলবার রাতে শুয়ে ছিল মিষ্টি মেয়ে ৷ স্কুলে লেখাপড়া শুরু করার পরে এই প্রথম সরস্বতী পুজো ৷

তাই বাবার কাছে বায়না ধরাতেই বাবা লাল পেড়ে হলুদ শাড়ি কিনে এনেছিলেন ৷ সাধ করে শাড়িটি পরিয়েছিলেন ঠাকুরমা ৷ ঠাকুরমার হাতে সাজুগুজু করে চার বছরের বর্ণালি অঞ্জলি দিতে মণ্ডপে বেরিয়েছিল ৷ বাড়ি থেকে বেরলেও ফেরেনি সে ৷ বৃহস্পতিবার সে বাড়ি ফিরেছিল কিন্তু চোখ বন্ধ করেই ৷ জানতে পারা গিয়েছে প্রতিমার সামনে রাখা প্রদীপের আলোতেই আচমকা বর্ণালীর শাড়ি ও পরচুলায় আগুন ধরেই গিয়েছিল ৷ অগিদগ্ধ অবস্থায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে লড়াই করে ছোট্ট মেয়েটি তবে ২৪ ঘণ্টা টানা মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে গিয়ে হার মানে ছোট্ট মেয়েটি ৷

একরত্তি মেয়ের মৃত্যুর খবর শুনে মায়ের অবস্থা শোকের সংজ্ঞা হারাচ্ছেন মা বীণা সরকার ৷ নিজের হাতেই নাতনিকে সাজিয়ে দিয়েছিলেন ঠাকুমা ৷ সে যের আর বাড়িতে ফিরবেনা এটা শুনে বারেবারে ঠাকুরমা ডুকরে ডুকরে কেঁদে উঠছেন ৷ শিলিগুড়ি ডাবগ্রাম ২ নং পঞ্চায়েতের ঠাকুরনগরের ভবেশ মোড়ের বাসিন্দা বিশ্বনাথ ও বীণা সরকারের একমাত্র মেয়ে বর্ণালী ৷ মেয়ের বায়না মেনে নিয়ে বাবা হলুদ শাড়ি ও পরচুলা কিনে এনেছিলেন ৷ সেই শাড়িতে আগুন লেগেই বিপত্তি হয়েছিল ৷ বাড়ির মেয়ে যেন সরস্বতী পুজোর আনন্দে সবাইকে কাঁদিয়ে ছাড়ল ৷ সরকার পরিবারে যেন শোকের ছায়া নেমে এসেছে ৷

Published by: Arjun Neogi
First published: February 1, 2020, 12:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर