নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের পথে নামল বিনয়পন্থী মোর্চা সংগঠন, পোড়ানো হল অমিত শাহের কুশ পুতুল

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের পথে নামল বিনয়পন্থী মোর্চা সংগঠন, পোড়ানো হল অমিত শাহের কুশ পুতুল
  • Share this:

PARTHA PRATIM SARKAR

#দার্জিলিং: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস করা নিয়ে আন্দোলনে নামছে বিনয়পন্থী মোর্চা। এই বিল গতকালই লোকসভায় পাস করা হয়েছে। এতে পাহাড়ের লক্ষাধিক গোর্খা নিজেদের বিপন্ন মনে করছেন। আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন তাঁরা। ডিসেম্বর মাস জুড়ে পাহাড়ে আন্দোলন। বুধবার দার্জিলিং ও কালিম্পং জেলাশাসক এবং কার্শিয়ং ও মিরিক মহকুমা শাসকের দপ্তরে ধর্ণা দেবে মোর্চা। এই বিল গোর্খাবিরোধী। এতে গোর্খারা মোটেও সুরক্ষিত নয়। অথচ ২০১৪-তে শিলিগুড়ির খাপরাইলে জনসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছিলেন "গোর্খাদের স্বপ্ন। আমাদের স্বপ্ন"। পরে শিলিগুড়ি ও কালিম্পংয়ে মোদী এবং অমিত শাহ একাধিকবার গোর্খাদের নানান স্বপ্ন দেখিয়ে এসেছেন। অথচ গতকাল লোকসভায় ঠিক উল্টোটা হল। এতে গোর্খা জাতিরা অসুরক্ষিত। আর তাই সিকিমও এর বিরোধীতায় নেমেছে।

উত্তর-পূর্ব ভারতজুড়ে আন্দোলন চলছে। এবার সেই রেশ আছড়ে পড়েছে দার্জিলিংয়ে। আজ দার্জিলিংয়ের চক বাজারে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং সাংসদ রাজু বিস্তার কুশপুতুল দাহ করে বিক্ষোভ দেখায় বিনয়পন্থীরা। আগামী ১৯ ডিসেম্বর দার্জিলিং এবং কালিম্পং দুই জেলাশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেবে তাঁরা। ২০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী-সহ সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি পাঠাবেন বিনয় তামাং। আগামী ২৩-২৭ ডিসেম্বর পাহাড়ের সব কেন্দ্রীয় দপ্তরে বিক্ষোভ চলবে। এই বিল পুরোপুরি গোর্খাবিরোধী। দাবি বিনয় তামাংয়ের। সিকিমের এক সাংসদও বিলের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় গোর্খাদের সুরক্ষার ব্যবস্থা করছেন। গোর্খাদের দাবি মেটানোর আশ্বাস দিয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গ ও সিকিমের মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মোর্চা সভাপতি বিনয় তামাং।

আজ শিলিগুড়ির পিনটেইলড ভিলেজে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানান, ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠক ডাকা হবে। সেই বৈঠকে আন্দোলনের পরবর্তী কর্মসূচী স্থির করা হবে। পাশাপাশি পাহাড়ের বিমল গুরুং বিরোধী অন্য রাজনৈতিক দল এবং অরাজনৈতিক সংগঠনের কাছেও আর্জি জানাবেন বিনয় তামাং। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে পাহাড়ে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের পথে নামতে চাইছেন বিনয়রা। এর আগে পাহাড়ের চা শ্রমিকদের মজুরী আদায়েও জোট বেঁধে আন্দোলনে নেমেছিল বিনয়পন্থীরা। তিনি সাফ জানান, ক্যাব এবং এনআরসি মানা হবে না। এই বিল গুলো আদপে গোর্খাদের হিতের বিরুদ্ধ। আদপে এই ইস্যুর মধ্য দিয়ে পাহাড়ে নিজেদের রাজনৈতিক জমি শক্ত করতে নামছে বিনয় তামাং, অনিত থাপারা।

First published: 11:18:51 PM Dec 10, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर