‘গুরুং পাহাড়ে গেলে পরিস্থিতি অশান্ত হবে’, কলকাতায় পা দিয়েই সাফ জানালেন তামাং

‘গুরুং পাহাড়ে গেলে পরিস্থিতি অশান্ত হবে’, কলকাতায় পা দিয়েই সাফ জানালেন তামাং
বিমল গুরুং, রোশন গিরি'রা পাহাড়ের সিলেবাস থেকে বাদ গিয়েছেন। তাদের কোনও চ্যাপ্টার পাহাড়ের জনজীবনে আজ অস্তিত্বহীন বলেও ইঙ্গিত পূর্ণ মন্তব্য করেছেন বিনয়।

বিমল গুরুং, রোশন গিরি'রা পাহাড়ের সিলেবাস থেকে বাদ গিয়েছেন। তাদের কোনও চ্যাপ্টার পাহাড়ের জনজীবনে আজ অস্তিত্বহীন বলেও ইঙ্গিত পূর্ণ মন্তব্য করেছেন বিনয়।

  • Share this:

#কলকাতা: গুরুং পাহাড়ে গেলে পরিস্থিতি অশান্ত হবে। ২০১৭ পুনরাবৃত্তির আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না । অতীত অভিজ্ঞতা টেনে সোমবার বিমানবন্দরে নেমে এমনটাই সাফ জানালেন News18 বাংলাকে। মঙ্গলবার বিকেল ৩ টে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক। পাহাড়ের শান্ত ও স্বাভাবিক জনজীবন ধরা রাখার কারণেই এই বৈঠক বলে জানিয়েছেন তামাং।

বিমল গুরুং, রোশন গিরি'রা পাহাড়ের সিলেবাস থেকে বাদ গিয়েছেন। তাদের কোনও চ্যাপ্টার পাহাড়ের জনজীবনে আজ অস্তিত্বহীন বলেও ইঙ্গিত পূর্ণ মন্তব্য করেছেন বিনয়। তাঁর কথায়, " পাহাড়ের গুটিকয়েক মানুষের সমর্থন এখন গুরুঙদের আছে। বেশীরভাগ মানুষ চায় না পাহাড়ে ফিরুক গুরুং জমানা। পাহাড়, ডুয়ার্সের মানুষের মনের সঙ্গে আর কোনও ভাবে খাপ খায় না গুরুংরা। মোর্চার রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক মতাদর্শ বিক্রি করার কোনও অধিকার গুরুংদের নেই। পাহাড়ের মানুষ তাই গুরুংদের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে।"

এখানেই না থেমে প্রকারান্তরে গুরুংদের উদ্দেশ্যে বিনয় তামাং জানান, "কেউই আইনের উর্দ্ধে নয়। দেশের যে কোনও নাগরিকের জন্য আইন ও গণতান্ত্রিক কাঠামো একটাই।"জিটিএ চেয়ারম্যান অনিক থাপাও বলেন, 'গুরুংরা কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলন করেছে টিভিতে দেখেছি। পাহাড়ের সুস্থ ও স্বাভাবিক জনজীবন অব্যাহত রাখতে সরকারের ডাকা বৈঠকে যোগ দেব। পাহাড়ের আইনশৃঙ্খলা দেখে রাজ্য। শান্তি ও স্বাভাবিক পাহাড় চাই,তাই বৈঠকে যোগ দিতে এসেছি।"


উল্লেখ্য, পঞ্চমীর দিন কলকাতায় সাংবাদিক সম্মেলনে বিমল গুরুংয়ের আত্মপ্রকাশ ও সরাসরি এনডিএ ছেড়ে শাসকদল তৃণমূলের হাত ধরার ঘোষণার পর থেকেই পাহাড়ের রাজনীতিতে ঝড় ৷ আত্মপ্রকাশের পরদিনই পাহাড়ে পড়ে হুমকি পোস্টার ৷ ‘গুরুং এলেই পাহাড়ের রক্তে ভেসে যাবে তিস্তা ৷’

দিনকয়েক আগেই তামাং অনুরাগীরা পাহাড়ে বিশাল গুরুং বিরোধী মিছিল বার করায় তুঙ্গে রাজনৈতিক উত্তাপ ৷ শনিবার কার্শিয়াঙেও হয় একইরকম মিছিল ৷ পাহাড়ের পরিস্থিতি অশান্ত হওয়ার আগেই বিনয় তামাং, অমিত থাপাদের বৈঠকে ডেকে পাঠিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷

Arnab Hazra

Published by:Elina Datta
First published: