• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • National Highway 10 Is In Worst Condition: অবিরাম বৃষ্টি, একটানা ধসে বাংলা-সিকিম লাইফ লাইন বিপর্যস্ত

National Highway 10 Is In Worst Condition: অবিরাম বৃষ্টি, একটানা ধসে বাংলা-সিকিম লাইফ লাইন বিপর্যস্ত

পাহাড় থেকে পড়ছে পাথর। জাতীয় সড়কের উপর ঝর্ণার জল। খুবই খারাপ অবস্থা।

পাহাড় থেকে পড়ছে পাথর। জাতীয় সড়কের উপর ঝর্ণার জল। খুবই খারাপ অবস্থা।

পাহাড় থেকে পড়ছে পাথর। জাতীয় সড়কের উপর ঝর্ণার জল। খুবই খারাপ অবস্থা।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ফের ধসে জেরবার বাংলা ও সিকিমের সংযোগকারী ১০ নং জাতীয় সড়ক। অবিরাম বৃষ্টির জেরে জাতীয় সড়কের একাধিক জায়গায় ধস নামে। ২৯ মাইলের দু'জায়গায় ধস নামে। ক্রমাগত পাহাড় থেকে পড়তে থাকে পাথর। জাতীয় সড়কের ওপর দিয়ে পাহাড়ী ঝর্ণার জল বইতে থাকে। ধস নামে চিত্রে ও রংপোর মাঝে জাতীয় সড়কেও। দূর্ভোগ চরমে নিত্য যাত্রী থেকে পাহাড়ে বেড়াতে আসা পর্যটকদের।

চলতি বর্ষায় ১০ নং জাতীয় সড়ক ধসে বেহাল হয়ে পড়েছে। সেবক থেকে রংপো ধসের জেরে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। হাতিশুঁড়, শ্বেতীঝোরা, ২৯ মাইল, ভালুখোলা, মল্লিতে একাধিক জায়গায় ধসের জেরে সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে জাতীয় সড়ক। কার্যত ঝুঁকি নিয়েই চলছে গাড়ি। বহু জায়গায় একমুখী যান চলাচল করছে। চালকদের বিপদের মধ্য দিয়ে সাবধানতার সঙ্গে গাড়ি চালাতে হচ্ছে।

রাতভর টানা বৃষ্টির পর সকাল থেকেও চলছে মুষলধারা বৃষ্টি। ২৯ মাইলের ২ জায়গায় ধস নামে। ঘন্টা তিনেকের চেষ্টায় কিছুটা ধস সরানো হয়। একমুখী যান চলাচল শুরুও করে। নতুন করে ধস নামে চিত্রে ও রংপোর মাঝে। যার জেরে শিলিগুড়ির সঙ্গে সিকিম এবং কালিম্পংয়ের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। জাতীয় সড়কের দু'ধারে দাঁড়িয়ে সারি সারি গাড়ি। বৃষ্টির জেরে ব্যহত হচ্ছে ধস সরানোর কাজ। ঘটনাস্থলে রয়েছেন পূর্ত বিভাগের এন এইচ ডিভিশনের ইঞ্জিনিয়র ও কর্মীরা।

জাতীয় সড়ক বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় তিস্তা, লামাহাটা, ঘুম, জোরবাংলো হয়ে অনেকটা ঘুরপথে চলছিল গাড়ি। কিন্তু চিত্রের কাছে ধস নামায় বিকল্প পথও বন্ধ হয়ে পড়েছে। পূর্ত দপ্তরের এক ইঞ্জিনিয়র জানান, লাগাতার বৃষ্টির জেরে ধস নামছে বিভিন্ন জায়গায়। বৃষ্টি কমলে দ্রুত যান চলাচলের জন্যে স্বাভাবিক করে তোলা হবে। কিন্তু বার বার ধসের জেরে জাতীয় সড়ক বিপর্যস্ত হয়ে পড়ায় ক্ষোভ বাড়ছে। স্থানীয় গাড়ি চালকেরা চান স্থায়ী সমাধান। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বৃষ্টি কমলে পুজোর আগে জাতীয় সড়ক সংস্কার করা হবে।

Published by:Suman Majumder
First published: