ভোট হোক হিংসামুক্ত, রাজ্যে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষে জোরালো সওয়াল জগদীপ ধনখড়ের

শিলিগুড়িতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

রাজ্যে অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষেই জোরালো সওয়াল করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। একদিনের ঝটিকা দার্জিলিং সফরের ফাঁকে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, রাজ্যে এ বারে নির্বাচন হোক হিংসামুক্ত।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: রাজ্যে অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষেই জোরালো সওয়াল করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। একদিনের ঝটিকা দার্জিলিং সফরের ফাঁকে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, রাজ্যে এ বারে নির্বাচন হোক হিংসামুক্ত। গোটা দেশ চায় শান্তিপূর্ন ভোট। রাজ্যবাসীও তার ব্যতিক্রম নয়। রাজ্যের সঙ্গে রাজ্যপালের বিরোধ নতুন নয়। বরাবরই প্রকাশ্যে এসেছে মতপার্থক্য। রাজ্য এবং রাজ্যপাল সংঘাত বহু চর্চিত। তাঁর সঙ্গে রাজ্য প্রশাসন নানাভাবে অসহযোগিতা করে আসছে, একাধিকবার সেই অভিযোগ তুলেছেন। জেলা সফরের সময়ে পুলিশ ও প্রশাসনিক কর্তারা তাঁর সঙ্গে দেখা পর্যন্ত করেন না, রয়েছে আরও  কিছু অভিযোগ।

এ বারে রাজ্যপাল প্রথম থেকেই বিভিন্ন সময়ে বলে এসেছেন নির্বাচনে হিংসা যেন না ছড়ায়, সেদিকে নজর রাখতে হবে প্রতিটি রাজনৈতিক দলকেই। নির্বাচনে যেন রক্ত না ঝরে। পাহাড় সফরে এসেও নিজের ঘোষণাতেই অটুট রাজ্যপাল বলেন, "প্রতিটি ভোটারই যেন নির্ভয়ে বুথে গিয়ে তাঁর ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে, তা সুনিশ্চিত করতে হবে। নির্ভয়ে ভোটপর্ব মিটবে, এটাই আমার আশা।" রাজ্যে বিগত কয়েকটি নির্বাচনে হিংসার ঘটনা ঘটেছে ভুরি ভুরি। ভোটের বলি হয়েছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অনেকেই। ভোট মানেই রাজ্যে আতঙ্ক। তাই একুশের নির্বাচনে নয়া নজির গড়ুক রাজ্য, দৃষ্টান্ত স্থাপন করুক রাজ্য, চান রাজ্যপাল।

রাজ্যপালের কথায়, রাজনৈতিক দলের দলাদলিতে তিনি জড়াতে চান না। তিনি বিশ্বাসী গনতন্ত্রের ওপর। একজন সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে তাঁর লক্ষ্যই সুস্থ পরিবেশেভোক ভোট যুদ্ধ। রাজ্যপাল বলেন, "শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্পন্ন করতে নির্বাচন কমিশন যথাযথ ব্যবস্থা নেবে। গনতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগের উৎসব হোক উৎসবের মেজাজে।" তাঁর কথায়, সংবাদমাধ্যমেরও এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। প্রতিটি রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের কাছে তাঁর পরামর্শ, নির্বাচন হোক বিনা হিংসায়। নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগের সময়ে ভোটাররা যেন বাধার মুখে না পড়েন।

Partha Sarkar

Published by:Shubhagata Dey
First published: