গ্রাম থেকে উদ্ধার ৭টি উট, পাচারের জন্য় রাখা হয়েছিল লুকিয়ে

কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ এবং পিউপলস ফর এনিমেলের সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে সেখানে থেকে উটগুলো উদ্ধার করে।

কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ এবং পিউপলস ফর এনিমেলের সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে সেখানে থেকে উটগুলো উদ্ধার করে।

  • Share this:

#কালিয়াগঞ্জ:  বাঁশ ঝাড়ে লুকিয়ে রাখা সাতটি উট উদ্ধার করল কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ। এই ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। পুলিশ নির্দিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে। জানা গিয়েছে, গতকাল রাতে উত্তর দিনাজপুর জেলা পশুপ্রেমী সংগঠন পিউপলস ফর এনিমেলে সদস্যদের কাছে খবর আসে কালিয়াগঞ্জ থানার মালগাঁও গ্রাম পঞ্চায়েতের কালুডাঙ্গা গ্রামে এক বাঁশ ঝাড়ে সাতটি উট লুকিয়ে রাখা রয়েছে। সেই উটগুলো রাতের অন্ধকারে বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এই আশঙ্কা করেই পশুপ্রেমী সংগঠনের সদস্যরা কালিয়াগঞ্জ থানার ঘটনাটি জানায়।

কালিয়াগঞ্জ থানার পুলিশ এবং পিউপলস ফর এনিমেলের সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে সেখানে থেকে  উটগুলো উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া উটগুলোকে কালিয়াগঞ্জ থানায় নিয়ে আসা হয়। কালিয়াগঞ্জ থানার আই সি জানিয়েছেন, উটগুলো উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ নির্দিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে। কী কারণে উট গুলো এখানে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আদালতের নির্দেশ অনুযাযী উটগুলোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে আই সি জানিয়েছেন।

পশুপ্রেমী সংগঠন উত্তর দিনাজপুর পিউপল ফর এনিমেলের সদস্য সুব্রত দাসের অভিযোগ, রাতের অন্ধকারে মাঝে মাঝে এই পথ দিয়ে উট বাংলাদেশে পাচার হয়। পিউপলস ফর এনিমেলের সদস্যরা পশু পচার রুখতে বিশেষ নজরদারি চালায়। এর আগেই কালিয়াগঞ্জের এই পথ দিয়ে উট পাচার করার সময় তারা ধরে পুলিশের হাতে তুলে দিয়ে দিল। গতকাল, শনিবার,  কালুডাঙা গ্রামের উট লুকিয়ে রাখার খবর দেন। পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছাতেই উট বাহকরা সেখান থেকে গা ঢাকা দেয়। কারা এই উট পাচারে যুক্ত, পুলিশের কাছে দুইজনের নাম দেওয়া হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে পারলে উট পাচারের রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদি সুব্রতবাবু। সম্প্রতি বি এস এফের আই জি উত্তর দিনাজপুর জেলায় গোয়ালপোখর ব্লকের সীমান্ত এলাকা পরিদর্শন করতে এসে  সীমান্ত পাহাড়ায় আরও কঠোর করা হবে আশ্বস্ত করেছিলেন।

Published by:Pooja Basu
First published: