Home /News /national /
Anand Mahindra: হতে চেয়েছিলেন ফিল্মমেকার, হয়ে গেলেন শিল্পপতি! জানুন আনন্দ মাহিন্দ্রার জীবনের গল্প!

Anand Mahindra: হতে চেয়েছিলেন ফিল্মমেকার, হয়ে গেলেন শিল্পপতি! জানুন আনন্দ মাহিন্দ্রার জীবনের গল্প!

Anand Mahindra

Anand Mahindra

Anand Mahindra: ভেবেছিলেন কলেজ পাশ করে মনের মতো চলচ্চিত্র তৈরি করবেন।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আনন্দ মাহিন্দ্রাকে (Anand Mahindra) চেনেন না ভারতে এমন মানুষ খুব কমই আছেন। আচ্ছা, যদি তাদের কাছে প্রশ্ন করা যায় আনন্দ যদি একজন চলচ্চিত্র নির্মাতা হতেন তাহলে তিনি কী ধরনের সিনেমা বানাতেন? সাইফি, থ্রিলার, রোমান্টিক না কি কমেডি?

হ্যাঁ, এখন মনে হতেই পারে হঠাৎ এসব প্রশ্ন কোত্থেকে আসছে? আসলে আনন্দ মাহিন্দ্রার মতো এক সফল ব্যবসায়ী যখন তাঁর যৌবনের দিনগুলিতে কলেজ জীবনে রীতিমতো দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তখন আনন্দ একজন চলচ্চিত্র নির্মাতা হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। ভেবেছিলেন কলেজ পাশ করে মনের মতো চলচ্চিত্র তৈরি করবেন। কিন্তু জীবন হয় তো তার জন্য অন্য কোনও পরিকল্পনা বানিয়ে রেখেছিল।

সম্প্রতি তিনি সিনেমাপ্রেমের এক অতীত দিনের ছবি শেয়ার করে, ট্যুইটারে (Twitter) লিখেছেন যে, এই ছবিটি ইন্দোরের কাছে একটি প্রত্যন্ত গ্রামে একটি তথ্যচিত্রের শুটিং করার সময় তোলা হয়েছিল। “কিন্তু আপনি কি অনুমান করতে পারেন যে ক্যামেরার পেছনে কে রয়েছেন?”

আসলে আনন্দের এক ফ্যান তাঁকে তাঁর অতীত জীবনের কথা জিজ্ঞেস করলে তারই প্রতিক্রিয়া স্বরূপ মাহিন্দ্রা অকপটে জানান, “এর উত্তর দেওয়া সহজ। আমি একজন ফিল্মমেকার হতে চেয়েছিলাম এবং আমি কলেজে থাকাকালীন ফিল্ম নিয়ে পড়াশোনাও করেছি। আমার থিসিস ছিল একটি ফিল্ম যা আমি ১৯৭৭ সালের কুম্ভ মেলাযর ওপর তৈরি করেছিলাম। কিন্তু এই ছবিটি ইন্দোরের কাছে একটি প্রত্যন্ত গ্রামে একটি তথ্যচিত্রের শুটিংয়ের সময়ে। কেউ এখানে অনুমান করতে পারবেন আমি কোন হ্যান্ডহেল্ড ১৬মিমি ক্যামেরা ব্যবহার করেছি?”

তবে চলচ্চিত্র ও চলচ্চিত্র তারকাদের প্রতি তাঁর ভালোবাসার কথা এই প্রথম তিনি বলেননি। গত বছর, ব্যবসায়িক টাইকুন অজয় দেবগণের (Ajay Devgan) একটি বিপজ্জনক স্টান্টের নোট নিয়ে ট্যুইটারে বলেছিলেন, "৩০ বছর আগে, তাঁর প্রথম বলিউড ফিল্ম ফুল অউর কাঁটে ছবিতে আসল স্টান্টে অভিনয় করেছিলেন। এখন আবার মাহিন্দ্রার জন্য অজয় এমন স্টান্ট করছেন...” কেন না, দেবগণ ওই শ্যুটে মাহিন্দ্রা ট্রাকে বিজ্ঞাপনের জন্য অভিনয় করেছিলেন।

এছাড়াও গত বছর, এই শিল্পপতি পরিচালক হৃষিকেশ মুখোপাধ্যায় (Hrishikesh Mukherjee) নির্দেশিত ১৯৭১ সালের চলচ্চিত্র 'আনন্দ' (Anand)-এর ৫০ বছর উদযাপন করতে মাইক্রো-ব্লগিং সাইটে নিজের ভালোবাসার কথা জানান।

তিনি ওই থ্রেডটি শেয়ার করে লিখেছিলেন যে আনন্দ যখন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৫। সেই সময়, তাঁর নামের একটি ছবি এত ভালো সাড়া ফেলেছে বলে তিনি উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন!

Published by:Piya Banerjee
First published:

Tags: Anand Mahindra, Bollywood

পরবর্তী খবর